উপত্যকার মধ্যস্থলে দাঁড়িয়ে জাম্রাতুল আক্বাবায় কাঁকর নিক্ষেপ

উপত্যকার মধ্যস্থলে দাঁড়িয়ে জাম্রাতুল আক্বাবায় কাঁকর নিক্ষেপ করা

উপত্যকার মধ্যস্থলে দাঁড়িয়ে জাম্রাতুল আক্বাবায় কাঁকর নিক্ষেপ করা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫০. অধ্যায়ঃ মাক্কাহ্ মুআজ্জামাকে বাঁ পাশে রেখে উপত্যকার মধ্যস্থলে দাঁড়িয়ে জাম্রাতুল আক্বাবায় কাঁকর নিক্ষেপ করা এবং প্রতিটি পাথর নিক্ষেপের সময় আল্লাহু আকবার বলা

৩০২২

আবদুর রহমান ইবনি ইয়াযীদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনি মাসঊদ [রাদি.] উপত্যকার মধ্যখানে দাঁড়িয়ে জামরাতুল আক্বাবায় সাতটি পাথর নিক্ষেপ করিয়াছেন এবং প্রতিটি পাথরের সাথে তাকবীর বলেছেন। রাবী বলেন, তাকে বলা হল, লোকেরা তো উচ্চ স্থানে দাঁড়িয়ে পাথর নিক্ষেপ করে।

আবদুল্লাহ ইবনি মাসঊদ [রাদি.] বলিলেন, সে সত্তার শপথ, যিনি ছাড়া আর কোন ইলাহ নেই, এ সেই স্থান যেখানে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর উপর সূরাহ্ আল বাক্বারাহ্ নাযিল হয়েছে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৯৯৭, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৪]

৩০২৩

আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি হাজ্জাজ ইবনি ইউসুফকে মিম্বারে দাঁড়িয়ে ভাষণ দিতে গিয়ে বলিতে শুনেছিঃ জিবরীল [আঃ] যে ক্রমবিন্যাসে কুরআন মাজীদ সাজিয়েছেন, তোমরা তদনুযায়ী তা সুবিন্যস্ত কর। যেমন, প্রথম সে সূরাহ্ যার মধ্যে গাভী সম্পর্কে আলোচনা এসেছে। এরপর যে সূরায় মহিলাদের সম্পর্কে, এরপর সে সূরাহ্ যার মধ্যে ইমরান-পরিবার সম্পর্কে আলোচনা রয়েছে।

আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, এরপর আমি ইব্রাহীমের সাথে সাক্ষাৎ করে তাকে হাজ্জাজের বক্তব্য সম্পর্কে অবহিত করলাম। তিনি তাকে গালি দিলেন। এরপর বলিলেন, আবদুর রহমান ইবনি ইয়াযীদ আমাকে বলেছেন যে, তিনি আবদুল্লাহ ইবনি মাসঊদ [রাদি.]-এর সাথে ছিলেন। তিনি জামরাতুল আক্বাবায় এলেন, উপত্যকার মাঝে দাঁড়ালেন এবং জামরাহ্কে নিজের সম্মুখভাগে রাখলেন, এরপর উপত্যকার মাঝে দাঁড়িয়ে সাতটি কাঁকর নিক্ষেপ করিলেন, প্রত্যেকবার নিক্ষেপের সাথে সাথে আল্ল-হু আকবার বলিলেন। রাবী বলেন, আমি বললাম, হে আবু আবদুর রহমান! লোকেরা উপত্যকার উপরিভাগ থেকে পাথর নিক্ষেপ করে। তিনি বলিলেন, সে সত্তার শপথ যিনি ছাড়া আর কোন ইলাহ নেই, এ সেই স্থান যেখানে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর উপর সূরাহ্ আল বাক্বারাহ্ নাযিল হয়েছিল। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৯৯৮, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৫]

৩০২৪

আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি হাজ্জাজকে বলিতে শুনেছি, তোমরা বল না সূরাতুল বাক্বারাহ্…… এরপর ইবনি মুসহির বর্ণিত হাদীসের অনুরূপ বর্ণনা করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৯৯৯, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৬]

৩০২৫

আবদুর রহমান ইবনি ইয়াযীদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি আবদুল্লাহ [ইবনি মাসঊদ] [রাদি.]-এর সাথে হজ্জ করেন। রাবী বলেন, তিনি [আবদুল্লাহ] জামরায় সাতটি কাঁকর নিক্ষেপ করেন- বায়তুল্লাহকে বামদিকে এবং মিনাকে ডানদিকে রেখে এবং তিনি বলেন, এই সে স্থান যেখানে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর প্রতি সূরাহ্ আল বাক্বারাহ্ নাযিল করা হয়েছিল। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩০০১, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৭]

৩০২৬

শুবাহ্‌ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

এ সূত্রে উপরোক্ত হাদীসের অনুরূপ বর্ণিত হয়েছে। তবে তিনি বলেছেন, “তিনি [আবদুল্লাহ] যখন জামরাতুল আক্বাবায় এলেন।” [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩০০১, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৮]

৩০২৭

আবদুর রহমান ইবনি ইয়াযীদ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন আবদুল্লাহ [ইবনি মাসঊদ] [রাদি.]-কে বলা হল, লোকেরা আক্বাবার উচ্চভূমি থেকে পাথর নিক্ষেপ করে। রাবী বলেন, আবদুল্লাহ [রাদি.] উপত্যকার মধ্যভাগে দাঁড়িয়ে তা নিক্ষেপ করিলেন। এরপর তিনি বলেন, সে সত্তার শপথ যিনি ব্যতীত অন্য কোন মাবূদ নেই, যাঁর উপর সূরাহ্ আল বাক্বারাহ্ নাযিল হয়েছে, তিনি এই স্থান থেকে কাঁকর নিক্ষেপ করেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৩০০২, ইসলামিক সেন্টার- ২৯৯৯]

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply