ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা র দিনে রোজা পালন করা হারাম

ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা র দিনে রোজা পালন করা হারাম

ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা র দিনে রোজা পালন করা হারাম >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২২ অধ্যায়ঃ ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহার দিনে রোজা পালন করা হারাম

২৫৬১

ইবনি আযহারের মুক্ত গোলাম আবু উবায়দ হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি ঈদের দিন উমর ইবনি খাত্ত্বাব [রাদি.]–এর সাথে উপস্থিত ছিলাম। তিনি সালাত আদায় সমাপ্ত করে লোকদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দিচ্ছিলেন। এতে তিনি বলিলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এ দুদিন রোজা পালন করিতে নিষেধ করিয়াছেন। ঈদুল ফিতরের দিন, আর দ্বিতীয় হলো যেদিল তোমরা কুরবানীর গোশ্‍ত খেয়ে থাক। {৭} [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৩৮ ইসলামিক সেন্টার-২৫৩৭]

{৭} ঈদুল ফিত্‍র এবং ঈদুল আযহার দিন সওম পালন করা হারাম। চাই তা মানসা করা বা নযর মানার সওম বা নাফ্‍ল সওমই হোক অথবা কাফ্‍ফারার সওম বা অন্যান্য সওম হোক। আর যদি বিশেষ করে ইচ্ছাকৃতভাবে ঐ দিনসমূহে মানসা করে তবে ঈমাম শাফিঈ এবং অধিকাংশ উলামার মতে তার ঐ মানসা সাব্যাস্তই হইবে না। সওম পালন করা না করা পরের কথা, ফলে তার উপর কাযা করাও আবশ্যক নয়। অন্য পক্ষে ঈমাম আবু হানীফার মতে মানসা কার্যকর হইবে এবং তার কাযা আদায় ওয়াজিব। ফলে অন্য কোন দিন সওম পালনে তা পূর্ণ হইবে। কিন্তু এ কথা সকল ইমামের ব্যতিক্রম, ঈমাম নাবাবীও এমনই বলেছেন ।

২৫৬২

আবু হুরায়রাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুদিন রোজা পালন করিতে নিষেধ করিয়াছেন – কুরবানীর ঈদের দিন আর ঈদুল ফিত্‍রের দিন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৩৯ ইসলামিক সেন্টার-২৫৩৮]

২৫৬৩

ক্বাযাআহ্ থেকে আবু সাঈদ আল খুদরী [রাদি.]-এর সূত্র হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলিলেন, আমি তাহাঁর [আবু সাঈদ] কাছে একটি হাদীস শুনলাম যা আমার অত্যন্ত পছন্দ হলো। আমি তাঁকে বললাম, আপনি এ হাদীস রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর কাছে শুনেছেন। তিনি বলিলেন, আমি যা শুনিনি এমন কথা তাহাঁর নামে চালিয়ে দিতে পারি? এবার তিনি বলিলেন, আমি তাঁকে বলিতে শুনেছিঃ দুদিন রোজা পালন করা সমীচীন নয়। কুরবানীর ঈদের দিন আর রমযানের ঈদুল ফিতরের দিন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৪০ ইসলামিক সেন্টার-২৫৩৯]

২৫৬৪

আবু সাঈদ আল খুদরী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুটি দিন রোজা পালন করিতে নিষেধ করেছেনঃ ঈদুল ফিত্‍রের দিন এবং কুরবানীর ঈদের দিন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৪১ ইসলামিক সেন্টার-২৫৪০]

২৫৬৫

যিয়াদ ইবনি জুবায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, এক ব্যক্তি ইবনি উমর [রাদি.]-এর কাছে এসে বলিল, আমি একদিন রোজা পালন করব বলে মানৎ করেছি। ঘটনাক্রমে ঐ দিনই ঈদুল আযহা বা ঈদুল ফিত্‍রের দিন পড়েছে। ইবনি উমর [রাদি.] বলিলেন, আল্লাহ তাআলা মানৎ পূর্ণ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন এবং রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এ দিন রোজা পালন করিতে নিষেধ করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৪২ ইসলামিক সেন্টার-২৫৪১]

২৫৬৬

আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] দুটি দিন রোজা পালন করিতে নিষেধ করিয়াছেন। ঈদুল ফিত্‍রের দিন এবং ঈদুল আযহার দিন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৪৩ ইসলামিক সেন্টার-২৫৪২]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply