ইহরামের প্রকারভেদ ও তার গুণ পরিচয়

ইহরামের প্রকারভেদ ও তার গুণ পরিচয়

 ইহরামের প্রকারভেদ ও তার গুণ পরিচয় >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় ৩ঃ ইহরামের প্রকারভেদ ও তার গুণ পরিচয়

৭২৭ – আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, হাজ্জাতুল বিদার বছর আমরা নাবী [সাঃআঃ]-এর সঙ্গে বের হই। আমাদের মধ্যে কেউ কেবল উমরাহর ইহরাম বাঁধলেন, আর কেউ হাজ্জ ও উমরাহ উভয়টির ইহরাম বাঁধলেন। আর কেউ শুধু হাজ্জ-এর ইহরাম বাধলেন এবং আল্লাহর রাসূল [সাঃআঃ] শুধু হাজ্জের জন্য ইহরাম বাঁধলেন। ফলে যারা কেবল উমরাহর জন্য ইহরাম বেঁধেছিলেন তাঁরা [উমরাহ সমাধা করে] হালাল হলেন আর যারা হাজ্জ বা হাজ্জ ও উমরাহ উভয়ের জন্য ইহরাম বেঁধেছিলেন তারা কুরবানীর দিন না আসা পর্যন্ত হালাল হতে পারলেন না। {৭৭৪}

{৭৭৪} বুখারী ২৯৪, ৩০৫, ৩১৬, ১৫১৮, ১৫৫৬, ১৫৬২, মুসলিম ১২১১, তিরমিয়ী ৯৩৪, ৯৪৫, নাসায়ী ২৯০, ২৪৮, আবূ দাউদ ১৭৮২, ১৯৯৫, ইবনু মাজাহ ২৯৬৩, ২৯৯৯, আহমাদ ২৩৫৮১, ২৩৬৩৯, ১৮৬২ ৷ ইহরামের প্রকারভেদ হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply