ইস্তিগফার ও তাওবার মাধ্যমে গুনাহ মাফ হওয়া প্রসঙ্গে

ইস্তিগফার ও তাওবার মাধ্যমে গুনাহ মাফ হওয়া প্রসঙ্গে

ইস্তিগফার ও তাওবার মাধ্যমে গুনাহ মাফ হওয়া প্রসঙ্গে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২. অধ্যায়ঃ ইস্তিগফার ও তাওবার মাধ্যমে গুনাহ মাফ হওয়া প্রসঙ্গে

৬৮৫৬. আইয়ূব [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

যখন তাহাঁর মৃত্যু সমুপস্থিত তখন তিনি বলিলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে শুনা একটি হাদীস আমি তোমাদের নিকট হইতে গোপন রেখেছিলাম। আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-কে এ কথা বলিতে শুনেছি যে, যদি তোমরা পাপ না করিতে তবে আল্লাহ তাআলা এমন মাখ্‌লূক বানাতেন যারা পাপ করতো এবং আল্লাহ তাদেরকে মাফ করে দিতেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৭১০, ইসলামিক সেন্টার- ৬৭৬৬]

৬৮৫৭. আবু আইয়ূব আল আনসারী [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যদি তোমাদের কোন পাপ না থাকতো যা আল্লাহ মাফ করে দেন, তবে অবশ্যই আল্লাহ এমন সম্প্রদায় বানাতেন যাদের পাপ হত এবং তিনি তা মাফ করে দিতেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৭১১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৭৬৭]

৬৮৫৮. আবু হুরাইরাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, যে সত্তার হাতে আমার জীবন, আমি তাহাঁর কসম করে বলছি, তোমরা যদি পাপ না করিতে তবে অবশ্যই আল্লাহ তোমাদের নিশ্চিহ্ন করে এমন সম্প্রদায় বানাতেন যারা পাপ করে ক্ষমা চাইতো এবং তিনি তাদের মাফ করে দিতেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৭১২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৭৬৮]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply