নতুন লেখা

ইমামের খুতবাহ প্রদানকালে তাহিয়্যাতুল মাসজিদ আদায় করা

ইমামের খুতবাহ প্রদানকালে তাহিয়্যাতুল মাসজিদ আদায় করা

ইমামের খুতবাহ প্রদানকালে তাহিয়্যাতুল মাসজিদ আদায় করা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১৪. অধ্যায়ঃ ইমামের খুতবাহ প্রদানকালে তাহিয়্যাতুল মাসজিদ আদায় করা

১৯০৩

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, একদা নবী [সাঃআঃ] জুমার দিন খুতবাহ দিচ্ছিলেন। তখন জনৈক ব্যক্তি উপস্থিত হলে নবী [সাঃআঃ] তাকে বললেনঃহে অমুক! তুমি কি নামাজ আদায় করেছে? সে বলিল, না। তিনি বলেন: উঠে দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় কর [তাহিয়্যাতুল মাসজিদ]। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৮৮, ইসলামিক সেন্টার- ১৮৯৫]

১৯০৪

জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

….. পূর্বোক্ত হাদীসের অনুরূপ। তবে এ বর্ণনায় দু রাকআত নামাজের উল্লেখ নেই। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৮৯, ইসলামিক সেন্টার- ১৮৯৬]

১৯০৫

আম্‌র [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.]-কে বলিতে শুনেছেন: রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] জুমার দিন জিজ্ঞেস করিলেন: তুমি [তাহিয়্যাতুল মাসজিদ] নামাজ আদায় করেছ? সে বলিল, না। তিনি বললেনঃওঠো এবং দু রাকআত নামাজ আদায় কর। কুতায়বার বর্ণনায় আছে, তিনি বললেনঃতুমি দু রাকআত নামাজ আদায় কর। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৯০, ইসলামিক সেন্টার- ১৮৯৭]

১৯০৬

আম্‌র ইবনি দীনার [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.]-কে বলিতে শুনেছেন। নবী [সাঃআঃ] জুমার দিন মিম্বারের উপর খুতবাহ দানরত অবস্থায় জনৈক ব্যক্তি মাসজিদে এসে উপস্থিত হল। তিনি তাকে জিজ্ঞেস করেন, তুমি কি দু রাকআত নামাজ আদায় করেছ? সে বলিল, না। তিনি বলিলেন, নামাজ আদায় কর। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৯১, ইসলামিক সেন্টার- ১৮৯৮]

১৯০৭

আম্‌র [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.]-কে বলিতে শুনেছেন: রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] খুতবাহ দিচ্ছিলেন। তিনি বলিলেন, তোমাদের কেউ জুমার দিনে [মাসজিদে] এলো আর তখন যদি ঈমাম [হুজ্‌রা থেকে] বের হয়ে থাকেন, তবে সে দু রাকআত নামাজ আদায় করে নিবে। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৯৯২, ইসলামিক সেন্টার- ১৮৯৯]

১৯০৮

জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] জুমাআর দিন মিম্বারে উপবিষ্ট থাকা অবস্থায় সুলায়ক আল গাত্বাফানী মাসজিদে এসে [তাহিয়্যাতুল মাসজিদ] নামাজ আদায় করার আগেই বসে পড়ল। নবী [সাঃআঃ] তাকে বলেন: তুমি কি দু রাকআত নামাজ আদায় করেছো? সে বলিল, না। তিনি বলেন, তুমি উঠে দু রাকআত নামাজ আদায় কর। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৯৩, ইসলামিক সেন্টার- ১৯০০]

১৯০৯

জাবির ইবনি আবদুল্লাহ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, জুমার দিন সুলায়ক আল গাত্বাফানী এসে উপস্থিত হল, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তখন খুতবাহ দিচ্ছিলেন। সে বসে পড়লে তিনি তাকে বলেন: হে সুলায়ক! উঠে সংক্ষেপে দু রাকআত নামাজ আদায় কর। ….. অতঃপর তিনি [সাঃআঃ] বলিলেন, জুমার দিন তোমাদের কেউ যখন আসে এমতাবস্থায় যে, ঈমাম খুতবাহ দিচ্ছেন তখন সে যেন সংক্ষেপে দু রাকআত নামাজ আদায় করে …..। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ১৮৯৪, ইসলামিক সেন্টার- ১৯০১]

About halalbajar.com

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Check Also

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে”

মহান আল্লাহর বাণী : “তারা দুটি বিবদমান পক্ষ তাদের প্রতিপালক সম্পর্কে বাক-বিতণ্ডা করে” মহান আল্লাহর …

Leave a Reply

%d bloggers like this: