ইমানে সততা ও নিষ্ঠা

ইমানে সততা ও নিষ্ঠা

ইমানে সততা ও নিষ্ঠা >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫৬. অধ্যায়ঃ ইমানে সততা ও নিষ্ঠা

২২৬

আবদুল্লাহ [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

[আল্লাহ তাআলার বাণী] :

الَّذِينَ آمَنُوا وَلَمْ يَلْبِسُوا إِيمَانَهُمْ بِظُلْمٍ‏

“যারা ঈমান এনেছে এবং তাহাদের ঈমানকে যুল্‌ম দ্বারা কলূষিত করেনি নিরাপত্তা তাহাদের জন্য, তারাই সৎপথপ্রাপ্ত”-[সূরাহ আল আনআম ৬ : ৮২]। এ আয়াতটি অবতীর্ণ হলে তা সহাবাদের কাছে খুবই কঠিন মনে হলো। তাঁরা বলিলেন, আমাদের মধ্যে এমন কে আছে যে নিজের উপর আদৌ অত্যাচার করেনি? তখন রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] বলেন, তোমরা যা মনে করেছ বিষয়টি তা নয়, বরং এর মর্মার্থ হচ্ছে লুক্‌মান তাহাঁর পুত্রকে সম্বোধন করে যা বলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন :

‏ يَا بُنَىَّ لاَ تُشْرِكْ بِاللَّهِ إِنَّ الشِّرْكَ لَظُلْمٌ عَظِيمٌ

“হে বৎস! আল্লাহর সাথে কোন শারীক করো না, নিশ্চয়ই শির্‌ক চরম যুল্‌ম”-[সূরাহ লুক্‌মান ৩১ : ১৩]। [ই.ফা. ২২৭; ই.সে. ২৩৫]

২২৭

আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] থেকে উক্ত সানাদে হইতে বর্ণিতঃ

আবু কুরায়ব [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, ইবনি ইদ্‌রীস [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেছেন, প্রথমতঃ আমার পিতা আমাকে আবান ইবনি তাগলিব থেকে আমাশ-এর সূত্রে বর্ণনা করিয়াছেন, পরবতীকালে আমি নিজেই আমাশ থেকে  এ হাদীস শুনিয়াছি। [ই.ফা. ২২৮; ই.সে. ২৩৬]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply