আশুরা উপলক্ষে রোজা কোন দিন রাখা হইবে

আশুরা উপলক্ষে রোজা  কোন দিন রাখা হইবে

আশুরা উপলক্ষে রোজা  কোন দিন রাখা হইবে >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

২০. অধ্যায়ঃ আশুরা উপলক্ষে রোজা  কোন দিন রাখা হইবে

২৫৫৪

হাকাম ইবনি আরাজ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি ইবনি আব্বাস [রাদি.]- এর কাছে পৌছলাম। এ সময় তিনি যমযমের কাছে চাদর বিছানো অবস্থায় বসা ছিলেন। তখন আমি তাঁকে বললাম, আমাকে আশূরা দিবসের রোজা পালন সম্পর্কে সংবাদ দিন। উত্তরে তিনি বলিলেন, মুহাররম মাসের চাঁদ দেখার পর তুমি এর তারিখগুলো গুণে রাখবে। এরপর নবম তারিখে সওম অবস্থায় তোমার যেন ভোর হয়। তখন আমি তাঁকে জিজ্ঞেস করলাম, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] কি সেদিন রোজা পালন করিয়াছেন? তিনি বলিলেন, হ্যা, করিয়াছেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৩১, ইসলামিক সেন্টার- ২৫৩০]

২৫৫৫

হাকাম ইবনি আরাজ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, যমযমের কাছে ইবনি আব্বাস [রাদি.] চাদর বিছিয়ে বসে থাকা অবস্থায় আমি তাঁকে আশূরার দিবসে সওম পালন করা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলাম। এরপর তিনি হাজিব ইবনি উমর [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর হাদীস বর্ণনা করিয়াছেন। [ই ফা ২৫৩২, ই সে ২৫৩১]

২৫৫৬

আবদুল্লাহ ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] যখন আশূরার দিন রোজা পালন করেন এবং লোকদের রোজা পালনের নির্দেশ দেন, তখন সাহাবীগণ বলিলেন, ইয়া রসূলাল্লাহ! ইয়াহুদ এবং নাসারা এই দিনের প্রতি সন্মান প্রদর্শন করে থাকে। এ কথা শুনে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলিলেন, ইনশাআল্লাহ আগামী বছর আমরা নবম তারিখেও রোজা পালন করব। বর্ণনাকারী বলিলেন, এখনো আগামী বছর আসেনি, এমতাবস্হায় রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর ইন্তেকাল হয়ে যায়। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৩৩ ইসলামিক সেন্টার-২৫৩২]

২৫৫৭

আবদল্লাহ ইবনি আব্বাস [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন, আমি যদি আগামী বছর বেঁচে থাকি তবে মুহাররমের নবম তারিখেও রোজা পালন করব। আবু বাক্‍র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] বলেন, নবম তারিখই হচ্ছে আশূরার দিন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ২৫৩৪ ইসলামিক সেন্টার-২৫৩৩]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply