আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া বাংলা – ৯ম খন্ড

আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া বাংলা – ৯ম খন্ড

আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া বাংলা – ৯ম খন্ড >> আল বিদায়া ওয়ান নিহায়া এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায়  পৃষ্ঠা  মোট

১। হিজরী ৭৪ সন ১৩ ৩
২। ৭৪ হিজরী সনে যাদের ওফাত হয় ১৫ ১
৩। রাফি ইবন খাদীজ (রা) ১৫ ১
৪। আবু সাঈদ খুদরী (রা) ১৫ ২
৫। আবদুল্লাহ ইবন উমার (রা) ১৬ ৪
৬। উবায়দ ইবন উমায়র ১৯ ১
৭। আবু জুহায়ফা (রা) ১৯ ১
৮। সালমা ইবন আকওয়া ১৯ ২
৯। মালিক ইবন আবু আমির (রা) ২০ ১
১০। আবু আবদুর রহমান সুলামী ২০ ১
১১। আবু মারদ আল আসাদী ২০ ১
১২। বিশর ইবন মারওয়ান ২০ ২
১৩। ৭৫ হিজরী সন ২১ ৭
১৪। ৭৫ হিজরী সনে নেতৃস্থানীয় যারা ইনতিকাল করেন ২৭ ২
১৫। আবু ছালাবা খুশানী (রা) ২৮ ২
১৬। আসওয়াদ ইবন ইয়াযীদ ২৯ ১
১৭। হামৱান ইবন আবান (র) ২৯ ২
১৮। ৭৬ হিজয়ী সন ৩০ ৫
১৯। ৭৬ হিজরী সনে ওফাতপ্রাপ্ত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ৩৪ ১
২০। আবু উছমান আন নাহ্দী ৩৪ ১
২১। সাল্লাহ ইবন আশীম আদাবী (র) ৩৪ ৪
২২। যুহায়র ইবন কায়স বালাবী (রা) ৩৭ ১
২৩। মুনযির ইবন জারুদ (র) ৩৭ ১
২৪। ৭৭ হিজয়ী সন ৩৭ ৮
২৫। ৭৮ হিজরী সন ৪৪ ২
২৬। ৭৮ সনে ওফাতপ্রাপ্ত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ৪৫ ১
২৭। জাবির ইবন আবদুল্লাহ ইবন আমর (বা) ৪৫ ১
২৮। শুরায়হ ইবন হারিছ (র) ৪৫ ৮
২৯। আবদুল্লাহ ইবন গানাম (র) ৫২ ১
৩০। জুনাদা ইবন উমাইয়া আযদী (র) ৫২ ১
৩১। আলা ইবন যিয়াদ বসয়ী ৫২ ২
৩২। সুরাকা ইবন মিরদাস আযদী ৫৩ ২
৩৩। নাবিগা আল-জাদী ও অন্যানরা ৫৪ ১
৩৪। ৭৯ হিজরী সন ৫৪ ৮
৩৫। ৭১ হিজরী সনে যাদেৱ ওফাত হয় ৬১ ১
৩৬। ৮০ হিজরী সন ৬১ ৩
৩৭। ৮০ হিজরী সনে ওফাতপ্রাপ্ত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ৬৩ ১
৩৮। হযরড় উমার (রা)- এর আযাদকুত দাস আসলাম (র) ৬৩ ২
৩৯। জুবায়র ইবন নুফায়র (রা) ৬৪ ১
৪০। আবদুল্লাহ ইবন জা’ফর ইবন আবুতালিব (রা) ৬৪ ৩
৪১। আবু ইদরীস খাওলানী (র) ৬৬ ১
৪২। মা’বাদ আল জুহানী কাদরী ৬৬ ২
৪৩। ৮১ হিজরী সন ৬৭ ১
৪৪। ইবনুল আশআছের বিদ্রোহ ৬৭ ৫
৪৫। এই হিজরী সনে যাঁদের ওফাত হয় ৭১ ১
৪৬। বুজায়র ইবন ওয়ারকা সারীমী ৭১ ২
৪৭। আব্দুল্লাহ ইবন শাদ্দাদ ইবনুল হাদ ৭২ ১
৪৮। মুহাম্মদ ইবন আলী ইবন আবু তালিব (রা) ৭২ ৫
৪৯। ৮২ হিজরী সন ৭৬ ২
৫০। জামাজিম মঠের যুদ্ধ ৭৭ ৪
৫১। এই হিজরী সনে যাদের ওফাত হয় ৮০ ১
৫২। সেনাপতি মুহাল্লাব ৮০ ২
৫৩। আসমা ইবন খারিজাহ ফাযারী কুফী ৮১ ১
৫৪। মুগীৱা ইবন মুহাল্লাব ৮১ ১
৫৫। হারিছ ইবন আবদৃল্লাহ (র) ৮১ ১
৫৬। মুহাম্মদ ইবন উসামা ইবন যায়দ ইবন হারিছা (র) ৮১ ২
৫৭। আব্দুল্লাহ ইবন আবু তালহা ইবন আবু আসওয়াদ (র) ৮২ ১
৫৮। আব্দুল্লাহ ইবন কাব মালিক (র) ৮২ ১
৫৯। আফফান ইবন ওয়াহব (রা) ৮২ ১
৬০। জামীল ইবন আবর্দুল্লাহ (র) ৮২ ৫
৬১। উমার ইবন উবায়দুল্লাহ (র) ৮৬ ২
৬২। কুমায়ল ইবন যিয়াদ (র) ৮৭ ২
৬৩। যাযান আবু আমর আল কিন্দী (র) ৮৮ ১
৬৪। যিরর ইবন হবায়শ (র) ৮৮ ২
৬৫। ছোট উম্মু দারদা (র) ৮৯ ১
৬৬। ৮৩ হিজরী সন ৮৯ ৭
৬৭। ওরাসিত নগরী প্রতিষ্ঠা ৯৫ ১
৬৮। ৮৩ হিজরী সনে যাদের ওফাত হয় ৯৫ ১
৬৯। আব্দুর রহমান ইবন জুহায়রা (র) ৯৫ ১
৭০। তারিখ ইবন শিহাব (রা) ৯৫ ১
৭১। উবায়দুল্লাহ ইবন আদী (রা) ৯৫ ২
৭২। তারিক ইবন শিহাব (রা) ৯৬ ২
৭৩। উবাইদুল্লাহ ইবন আদী (রা) ৯৭ ২
৭৪। ৮৪ হিজরীর আগমন ৯৮ ১
৭৫। আয়্যুব ইবন আল-কেরীয়া ৯৮ ২
৭৬। রাওহ ইবন যাম্বা আল-জুযামী ৯৯ ৩
৭৭। আয়্যুব ইবন আল-কিরিয়াহ ১০১ ১
৭৮। রাওহ ইবন যাম্বা আল-জুযামী ১০১ ২
৭৯। ৮৫ হিজরীর আগমন ১০২ ৪
৮০। আবদুল আযীয ইবন মারও’য়ান ১০৫ ৫
৮১। আবদুল মালিকের আপন ছেলে ওয়ালীদ ও তাঁর পরে সুলইমানের জন্য বাইয়াত গ্রহণ ১০৯ ৩
৮২। ৮৬ হিজরীর আগমন ১১১ ২
৮৩। উমায়্যা খলীফাদের জনক আবদুল মালিক ইবন মাবওয়ান ১১২ ১২
৮৪। আৱতাত ইবন যুফার ১২৩ ২
৮৫। মুতাবরাফ ইবন আবদুল্লাহ ইবন আশ-শিখখীর ১২৪ ২
৮৬। দামেশকের জামি মসজিদের নির্মাতা আল ওয়ালীদ ইবন আবদুল মালিক ইবন মারওয়ানের খিলাফত ১২৫ ২
৮৭। ৮৭ হিজরীর প্রারম্ভ ১২৬ ৪
৮৮। উতবা ইবন আবদ আস-সুলামী (রা) ১২৯ ১
৮৯। আল-মিকদাম ইবন মাদীকারব (রা) ১২৯ ২
৯০। আবু উমামাতুল বাহিলী ১৩০ ১
৯১। কাবীলা ইবন যুওয়ায়ব (রা) ১৩০ ১
৯২। উৱওয়া ইবনুল মুগীরা ইবন শুবাহ ১৩০ ১
৯৩। কাযী শুরায়হ ইবন আল-হারিস ইবন কায়স ১৩০ ১
৯৪। ৮৮ হিজয়ীৱ প্রারস্ক ১৩০ ৪
৯৫। আবদুল্লাহ ইবন বুসর ইবন আবু বুসর আল-যাঁসানী (র) ১৩৩ ১
৯৬। আব্দুল্লাহ ইবন আবু আওফা (রা) ১৩৩ ১
৯৭। হিশাম ইবন ইসমইল ১৩৩ ১
৯৮। উমায়র ইবন হাকীম ১৩৩ ১
৯৯। ৮৯ হিজরীর আগমন ১৩৩ ৩
১০০। ৯০ হিজরীর আগমন ১৩৫ ৫
১০১। চিকিৎসক ইয়াতাযুক ১৩৯ ১
১০২। বালিদ ইবন ইয়াযীদ ইবন মুয়াবীয়া ১৩৯ ২
১০৩। আবদুল্লাহ ইবন আয-যুবায়র ১৪০ ১
১০৪। ৯১ হিজরীর প্রারম্ভ ১৪০ ৪
১০৫। স৷হল ইবন সাদ অসে-সাঈদী (রা) ১৪৩ ২
১০৬। ৯২ হিজরীর আগমন ১৪৪ ২
১০৭। তুওয়ায়স আল-মুগনী ১৪৫ ১
১০৮। ৯৩ হিজরীর প্রারম্ভ ১৪৫ ২
১০৯। সমরকন্দ বিজয় ১৪৬ ১২
১১০। উমর ইবন আবদুল্লাহ ইবন আবু রাবীআ ১৫৭ ১
১১১। বিলাল ইবন আবুদ দারদা ১৫৭ ১
১১২। বিশৱ ইবন সাঈদ ১৫৭ ২
১১৩। যুরারাহ ইবন আওফা ১৫৮ ১
১১৪। খুবায়ব ইবন আব্দুল্লাহ ১৫৮ ১
১১৫। হাফস ইবন আসিম ১৫৮ ১
১১৬। সাঈদ ইবন আবদুর রহমান ১৫৮ ১
১১৭। ফারওয়াহ ইবন মুজাহিদ ১৫৮ ১
১১৮। আবু শাছা জাবির ইবন যায়দ ১৫৮ ৪
১১৯। ৯৪ হিজরীর আগমন ১৬১ ২
১২০। সাঈদ ইবন জুবইর (র)-এর হত্যাকাণ্ড ১৬২ ৩
১২১। যেসব ব্যক্তিত্ব এ বছর ইনতিকাল করেন ১৬৪ ১
১২২। সাঈদ ইবন জুবায়র ১৬৪ ৩
১২৩। সাঈদ ইবনুল মুসায়্যিব ১৬৬ ৪
১২৪। তালক ইবন হাবীব আল-আনাযী ১৬৯ ২
১২৫। উরওয়াহ ইবনুয যুবায়র ইবনুল আওয়াম ১৭০ ৪
১২৬। আলী ইবনুল হুসায়ন (র) ১৭৩ ১৯
১২৭। আবু বকর ইবন আবদুর রহমান ইবন আল-হারিস ১৯১ ৩
১২৮। ৯৫ হিজরীর আগমন ১৯৩ ১
১২৯। হাজ্জাজ ইবন ইউসুফ আছ-ছুকোফী-এর জীবনী ও তার ওফাত পরিচ্ছেদ ১৯৩ ৯
১৩০। পরিচ্ছেদ ২০১ ১০
১৩১। যে সব হিতসাধনকারী কথাবার্তা এবং দুসোহসিক পদক্ষেপ তার থােক বর্ণিত রয়েছে ২১০ ১৯
১৩২। ইবরাহীম ইবন ইয়াযীদ আন-নাখঈ ২২৮ ১
১৩৩। আল-হাসান ইবন মুহাম্মদ ইবন আল-হানাফীয়্যা ২২৮ ১
১৩৪। হুমায়দ ইবন আবদুর রহমান ইবন আওফ আয-যুহরী ২২৮ ১
১৩৫। মুতাররাফ ইবন আবদুল্লাহ ইবন আশ-শিখখীর ২২৮ ২
১৩৬। ৯৬ হিজরীর প্রারম্ভ ২২৯ ১৯
১৩৭। দামেশকের জামি মসজিদ সম্বন্ধে যেসব হাদীস সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ থেকে বর্ণিত তার একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা ২৪৭ ৫
১৩৮। ইয়াহইয়া ইবন যাকারিয়্যা (আ)- এর মাথা সংক্রান্ত আলোচনা ২৫১ ৪
১৩৯। মসজিদের ক্রোয় স্থাপিত ঘড়িসমুহের আলোচনা ২৫৪ ২
১৪০। জামি উমাবীতে কিরআেতে সা বআর সুচনা ২৫৫ ২
১৪১। পরিচ্ছেদ ২৫৬ ২
১৪২। জামি দামেশকের নির্মাতা ওয়ালীদ ইবন আবদুল মালিকের জীবন চরিত এবং এ বছরে তার ওফাতের আলোচনা ২৫৭ ৯
১৪৩। আবদুল্লাহ ইবন উমর ইবন উছমান ২৬৫ ১
১৪৪। সুলায়মান ইবন আবদুর মালিকের খিলাফত ২৬৫ ২
১৪৫। কুতায়বা ইবন মুসলিমের হত্যাকাণ্ড ২৬৬ ৬
১৪৬। ৯৭ হিজরীর সুচনা ২৭১ ২
১৪৭। হাসান ইবন হাসান ইবন আলী ইবন আবু তালিব ২৭২ ২
১৪৮। মুসা ইবন নুসায়র আবু আবদুর রহমান আল লাখমী ২৭৩ ৫
১৪৯। ৯৮ হিজরীর সুচনা ২৭৭ ৫
১৫০। আবদুল্লাহ ইবন আবর্দুল্লাহ ইবন উতবা ২৮১ ১
১৫১। ৯৯ হিজরীর সুচনা ২৮১ ১২
১৫২। উমর ইবন আবদুল আযীয-এর খিলাফত ২৯২ ৩
১৫৩। হাসান ইবন মুহাম্মাদ আল হানাফিয়্যাহ ২৯৪ ১
১৫৪। আবদুল্লাহ ইবন মুহাইরীয ইবন জুনাদা ইবন উবাইদ ২৯৪ ২
১৫৫। মাহমুদ ইবন লাবীদ ইবন উকবা ২৯৫ ১
১৫৬। নাফি ইবন জুবায়র ইবন মুতইম ২৯৫ ১
১৫৭। কুরায়ব ইবন মুসলিম ২৯৫ ২
১৫৮। মুহাম্মাদ ইবন জুবায়ব ইবন মুতইম ২৯৬ ১
১৫৯। মুসলিম ইবন ইয়াসার ২৯৬ ১
১৬০। হানাশ ইবন আমৱ আসসান আনী ২৯৬ ২
১৬১। খরিজা ইবন য়ায়দ ২৯৭ ১
১৬২। হিজরী শততম বর্ষ ২৯৭ ৪
১৬৩। বানু আব্বাসের খিলাফতের প্রচারণার সুচনা ৩০০ ২
১৬৪। সালিম ইবন আবুল জাদ আলআশজাঈ ৩০১ ১
১৬৫। আবু উমামা সাহল ইবন হানীফ ৩০১ ২
১৬৬। আবুয্ যাহিরিয়্যাহ হুদায়র ইবন কুরায়ব আল হিম্মাসী ৩০২ ১
১৬৭। আবুত্-তুফায়ল আমির ইবন ওয়াছিলাহ ৩০২ ২
১৬৮। আবু উছমান আন নাহদী ৩০৩ ২
১৬৯। ১০১ হিজরীর সুচনা ৩০৪ ২
১৭০। খলীফা উমর ইবন আবদুল আযীযের জীবনী ৩০৫ ৬
১৭১। পরিচ্ছেদ ৩১০ ২০
১৭২। পরিচ্ছেদ ৩২৯ ২
১৭৩। পরিচ্ছেদ ৩৩০ ৩
১৭৪। তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কিত আলোচনা ৩৩২ ৬
১৭৫। পরিচ্ছেদ ৩৩৭ ১২
১৭৬। ইয়াযীদ ইবন আবদুল মালিকের খিলাফত ৩৪৮ ৩
১৭৭। ১০২ হিজরীর সুচনা ৩৫০ ৪
১৭৮। ইরাক ও খােরাসানের প্রশাসকরুপে মাসলামাহ ৩৫৩ ২
১৭৯। যাহহাক ইবন মুযাহিম আল-হিলালী ৩৫৪ ২
১৮০। আবুল মুতাওয়াককিল আননাজী ৩৫৫ ১
১৮১। ১০৩ হিজরীর সুচনা ৩৫৫ ১
১৮২। ইয়াযীদ ইবন আবু মুসলিম ৩৫৫ ১
১৮৩। মুজাহিদ ইবন জুবাইর আল-মাক্কী ৩৫৫ ২
১৮৪। পরিচ্ছেদ ৩৫৬ ৯
১৮৫। মুসআব ইবন সা’দ ইবন আবু ওয়াক্কাস ৩৬৪ ১
১৮৬। ১০৪ হিজরীর সুচনা ৩৬৪ ৩
১৮৭। খালিদ ইবন সাদান আল কিলাঈ ৩৬৬ ১
১৮৮। আমির ইবন সাদ ইবন আবু ওয়াক্কাস আল-লায়ছ ৩৬৬ ২
১৮৯। আমির ইবন শারাহীল আশ-শাবী ৩৬৭ ১
১৯০। আবু বুরদা ইবন আবু মুসা আল-আশআরী ৩৬৭ ২
১৯১। আবু কিলারা আল-জারমী ৩৬৮ ১
১৯২। ১০৫ হিজরীর সুচনা ৩৬৮ ৫
১৯৩। হিশাম ইবন আবদুল মালিক ইবন মারওয়ানের খিলাফত ৩৭২ ১
১৯৪। আবান ইবন উছমান ইবন আফফান ৩৭২ ২
১৯৫। ১০৬ হিজ়রীর সুচনা ৩৭৩ ১৫
১৯৬। ১০৭ হিজরীৱ সুচনা ৩৮৭ ১
১৯৭। সুলায়মান ইবন ইয়াসার ৩৮৭ ২
১৯৮। ইকরিমাহ ৩৮৮ ১০
১৯৯। আল কাসিম ইবন মুহাম্মদ ইবন আবু বাকর সিদ্দীক (বা) ৩৯৭ ১
২০০। প্রসিদ্ধ কবি আযযা প্রেমিক কুছায়য়ির ৩৯৭ ১৩

By ফিকাহ কিতাব

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply