আল আদাবুল মুফরাদ pdf – বিবিধ বিষয়

আল আদাবুল মুফরাদ pdf ( বিবিধ বিষয় )

আল আদাবুল মুফরাদ pdf , এই অধ্যায়ে মোট = ৬৮ টি হাদীস (৫৪০ – ৬০৭) << আদাবুল মুফরাদ হাদীস কিতাবের মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় – ৮ঃ বিবিধ বিষয়

২৪৭. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি নিজ ঘরের কাজকর্ম করে।
২৪৮. অনুচ্ছেদঃ কেউ তার কোন ভাইকে মহব্বত করলে তাকে যেন তা অবগত করে।
২৪৯. অনুচ্ছেদঃ কেউ কাউকে মহব্বত করলে সে যেন তার সাথে বিতর্কে লিপ্ত না হয় এবং তার নিকট কিছু না চায়।
২৫০. অনুচ্ছেদঃ অন্তর হলো বুদ্ধির উৎসস্থল।
২৫১. অনুচ্ছেদঃ অহংকার-অহমিকা।
২৫২. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি যুলুমের প্রতিশোধ গ্রহণ করে।
২৫৩. অনুচ্ছেদঃ দুর্ভিক্ষ ও ক্ষুৎপপাসার সময় সমবেদনা জ্ঞাপন।
২৫৪. অনুচ্ছেদঃ অভিজ্ঞতা ও অনুশীলন।
২৫৫. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি আল্লাহর ওয়াস্তে তার ভাইকে আহার করায়।
২৫৬. অনুচ্ছেদঃ জাহিলী যুগের পারস্পরিক চুক্তি।
২৫৭. অনুচ্ছেদঃ ভ্ৰাতৃ সম্পর্ক স্থাপন।
২৫৮. অনুচ্ছেদঃ ইসলামী যুগে সাবেক আমলের চুক্তি।
২৫৯. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি প্রথম বৃষ্টিতে ভিজলো।
২৬০. অনুচ্ছেদঃ ছাগল-ভেড়ার মধ্যে বরকত নিহিত।
২৬১. অনুচ্ছেদঃ উট তার মালিকের জন্য মর্যাদার উৎস।
২৬২. অনুচ্ছেদঃ যাযাবর জীবন।
২৬৩. অনুচ্ছেদঃ বিরান জনপদে বসবাসকারী।
২৬৪. অনুচ্ছেদঃ মরুময় ভূমিতে বা পানির উৎসে বসবাস।
২৬৫. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি গোপনীয়তা রক্ষা পছন্দ করে এবং যে কোন লোকের সাথে তাহাদের বৈশিষ্ট্যাবলী অবহিত হওয়ার জন্য মেলামেশা করে।
২৬৬. অনুচ্ছেদঃ কাজেকর্মে তাড়াহুড়া বৰ্জনীয়।
২৬৭. অনুচ্ছেদঃ কাজেকর্মে ধীরস্থিরতা।
২৬৮. অনুচ্ছেদঃ বিদ্রোহ।
২৬৯. অনুচ্ছেদঃ উপহারাদি গ্রহণ।
২৭০. অনুচ্ছেদঃ মানুষের মধ্যে ঘৃণা-বিদ্বেষ সৃষ্টি হওয়ার কারণে যে ব্যক্তি উপহারাদি বর্জন করে।
২৭১. অনুচ্ছেদঃ লজ্জাশীলতা।

২৪৭. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি নিজ ঘরের কাজকর্ম করে।

৫৪০. আসওয়াদ [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আমি আয়েশা [রাঃআঃ]-কে জিজ্ঞেস করলাম, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তার পরিবারবর্গের সাথে অবস্থানকালে কি কাজ করিতেন? তিনি বলেন, পরিবারের কাজকর্ম করিতেন এবং নামাযের ওয়াক্ত হলে বের হয়ে যেতেন।

[বোখারী, তিরমিজী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৪১. হিশাম ইবনি উরওয়া [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমি আয়েশা [রাঃআঃ]-কে জিজ্ঞেস করলাম, নাবী [সাঃআঃ] তার ঘরে অবস্থানকালে কি কাজ করিতেন? তিনি বলেন, তিনি তার জুতা মেরামত করিতেন এবং লোকজন নিজ ঘরে সাধারণত যা করে থাক, তিনিও তাই করিতেন

[আবু দাউদ]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৪২. হিশাম [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমি আয়েশা [রাঃআঃ]-কে জিজ্ঞেস করলাম, নাবী [সাঃআঃ] তাহাঁর ঘরে কি কাজ করিতেন? তিনি বলেন, তোমাদের কোন ব্যক্তি নিজ ঘরে যা করে থাকে, তিনি জুতা মেরামত করিতেন, কাপড়ে তালি দিতেন এবং সেলাই করিতেন

[আবু দাউদ]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৪৩. আমর [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আয়েশা [রাঃআঃ]-কে বলা হলো, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তার ঘরে কি কাজ করিতেন? তিনি বলেন, তিনি তো লোকজনের মতো একজন মানুষই ছিলেন। তিনি তাহাঁর কাপড় পরিষ্কার করিতেন এবং তাহাঁর বকরীর দুধ দোহন করিতেন

[শামাইলে তিরমিজী, বাযযার]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৪৮. অনুচ্ছেদঃ কেউ তার কোন ভাইকে মহব্বত করলে তাকে যেন তা অবগত করে।

৫৪৪. মিকদাম ইবনি মাদীকারিব [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমাদের কেউ তার অপর [মুসলমান] ভাইকে মহব্বত করলে সে যেন তাকে জানিয়ে দেয় যে, সে তাকে মহব্বত করে।

[আবু দাউদ, তিরমিজী, নাসায়ী, হাকিম, ইবনি হিব্বান] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৪৫. মুজাহিদ [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ]-এর কোন এক সাহাবী আমার সাথে সাক্ষাত করিলেন। তিনি আমার পেছন দিক থেকে আমার কাঁধ ধরে বলেন, শোন! আমি তোমাকে ভালোবাসি। রাবী বলেন, আমি বললাম, যে সত্তার [সন্তুষ্টির] জন্য আপনি আমাকে ভালোবাসেন, তিনি যেন আপনাকে ভালোবাসেন। সাহাবী বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] যদি একথা না বলিতেনঃ “কেউ কাউকে ভালোবাসলে সে যেন তাকে অবহিত করে যে, সে তাকে ভালোবাসে”, তবে আমি তোমাকে তা অবহিত করতাম না। রাবী বলেন, অতঃপর তিনি আমাকে বিবাহের প্রস্তাব দিয়ে বলেন, শোন! আমার কাছে একটি বালিকা আছে। তবে তার এক চোখ অন্ধ।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান সহীহ

৫৪৬. আনাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ দুই ব্যক্তি পরস্পরকে মহব্বত করলে, তাহাদের মধ্যে যে অপরজনকে অধিক মহব্বত করে সে অধিক উত্তম।

[হাকিম, ইবনি হিব্বান] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৪৯. অনুচ্ছেদঃ কেউ কাউকে মহব্বত করলে সে যেন তার সাথে বিতর্কে লিপ্ত না হয় এবং তার নিকট কিছু না চায়।

৫৪৭. মুআয ইবনি জাবাল [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

তুমি তোমার কোন [মুসলমান] ভাইকে মহব্বত করলে তার সাথে ঝগড়া করিবে না, তার ক্ষতি সাধনের চিন্তাও করিবে না এবং তার কাছে কিছু চাইবেও না। এমন যেন না হয় যে, তুমি শক্রর খপ্পরে পড়ে যাও এবং সে তোমাকে তার সম্পর্কে এমন কথা বলবে যা তার মধ্যে নেই। এভাবে সে তোমার ও তার মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করিবে

[জামে সগীর, হিলইয়া]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

৫৪৮. আবদুল্লাহ ইবন আমর [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ যে ব্যক্তি তাহাঁর অপর ভাইকে আল্লাহর উদ্দেশ্যে মহব্বত করে এবং বলে, আমি তোমাকে আল্লাহর [সন্তুষ্টি লাভের] উদ্দেশ্যে মহব্বত করি, তারা উভয়ে জান্নাতে দাখিল হইবে। যার মহব্বত অধিক প্রবল হইবে সে তার ভাইকে মহব্বত করার কারণে অধিক মর্যাদাবান হইবে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৫০. অনুচ্ছেদঃ অন্তর হলো বুদ্ধির উৎসস্থল।

৫৪৯. ইয়াদ ইবনি খলীফা [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি তাকে সিফফীন নামক স্থানে বলিতে শুনেছেন, অন্তর হলো বুদ্ধির উৎসস্থল, করুণার স্থান হৃদপিণ্ড, মায়া-মমতার স্থান যকৃত এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের স্থান ফুসফুস।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

২৫১. অনুচ্ছেদঃ অহংকার-অহমিকা।

৫৫০. আবদুল্লাহ ইবনি আমর [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

আমরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর নিকট বসা ছিলাম। তখন বনভূমি থেকে সীজান [এক প্রকার মাছ] রং-এর জুব্বা পরিহিত এক ব্যক্তি এসে নাবী [সাঃআঃ] -এর মাথার কাছে দাঁড়ালো এবং বললো, তোমাদের সাথী প্রত্যেক আরোহীকে অবদমিত করেছে বা আরোহীদেরকে অবদমিত করার সংকল্প করেছে এবং প্রত্যেক রাখালকে সমুন্নত করেছে। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তার জুব্বার হাতা ধরে বলেনঃ আমি কি তোমাকে নির্বোধের পোশাক পরিহিত দেখছি না? অতঃপর তিনি বলেনঃ আল্লাহর নাবী হযরত নূহ [আবু দাউদ]-এর ইন্তিকালের সময় উপস্থিত হলে তিনি তাহাঁর পুত্রকে বলেনঃ আমি তোমাকে একটি উপদেশ দিচ্ছি। আমি তোমাকে দুটি বিষয়ের আদেশ দিচ্ছি এবং দুটি বিষয় নিষেধ করছি। আমি তোমাকে

 لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ

“লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্”

এর নির্দেশ দিচ্ছি। কেননাসায়ী, সাত আসমান ও সাত জমিনকে যদি এক পাল্লায় তোলা হয় এবং অপর পাল্লায় “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্” তোলা হয়, তবে সেই তাওহীদের পাল্লাই ভারী হইবে। সাত আসমান ও সাত জমিন যদি একটি জটিল গ্রন্থির রূপ ধারণ করে, তবে “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ্” এবং

سُبْحَانَ اللَّهِ وَبِحَمْدِهِ

“সুবহানাল্লাহি ওয়াবিহামদিহী”

তা চুরমার করে দিবে। কেননা তা প্রত্যেক বস্তুর নামায এবং সকলেই এর বদৌলতে রিযিক লাভ করে থাকে। আর আমি তোমাকে বারণ করছি শিরক এবং অহংকারে লিপ্ত হইতে। আমি বললাম অথবা বলা হলো, ইয়া রসূলাল্লাহ! শিরক তো আমরা বুঝলাম, তবে অহংকার কি? আমাদের মধ্যকার কারো যদি কারুকার্য খচিত চাদর থাকে, আর তা পরিধান করে? তিনি বলেনঃ না। সে আবার বললো, যদি আমাদের কারো সুন্দর ফিতাযুক্ত সুন্দর একজোড়া জুতা থাকে? তিনি বলেনঃ না। সে পুনরায় বললো, যদি আমাদের কারো আরোহণের একটি জন্তুযান থাকে? তিনি বলেনঃ না। সে বললো, যদি আমাদের কারো বন্ধু-বান্ধব থাকে এবং তারা তার সাথে ওঠা-বসাও করে [তবে তা কি অহংকার হইবে]? তিনি বলেনঃ না। সে বললো, ইয়া রসূলাল্লাহ! তাহলে অহংকার কি? তিনি বলেনঃ সত্য থেকে বিমুখ থাকা এবং মানুষকে হেয় জ্ঞান করা।

[আহমাদ, নাসায়ী, বাযযার, হাকিম, হিব্বান, তাহাবী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৫১. ইবনি উমার [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ যে ব্যক্তি নিজেকে বড়ো মনে করে অথবা তার চালচলনে অহংকার প্রকাশ করে, সে এমন অবস্থায় মহামহিম আল্লাহর সাথে সাক্ষাত করিবে যে, তিনি তার প্রতি অসন্তুষ্ট থাকিবেন

[আবু দাউদ, হাকিম]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৫২. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ যে ব্যক্তি তার খাদেমকে সাথে নিয়ে আহার করে, গাধায় চড়ে বাজারে যায়, ছাগল পোষে এবং তার দুধ দোহন করে, সে অহংকারী নয়।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

৫৫৩. কাপড় বিক্রেতা সালেহ [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমি আলী [রাঃআঃ]-কে দেখলাম যে, তিনি এক দিরহামের খেজুর কিনে তা তার চাদরে করে নিয়ে যাচ্ছেন। আমি তাকে বললাম অথবা এক ব্যক্তি তাকে বললো, হে আমীরুল মুমিনীন! আপনার বোঝাটি আমিই বহন করি। তিনি বলেন, নাসায়ী, পরিবারের পিতাই বোঝা বহনের অধিক উপযুক্ত

[তারীখুল কামিল]।আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

৫৫৪. আবু সাঈদ [রাঃআঃ] ও আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ মহান আল্লাহ বলেন, ইজ্জত আমার পরিধেয় এবং কিবরিয়া [অহংকার] আমার চাদর। যে কেউ আমার সাথে এই দু’টি জিনিস নিয়ে বিবাদ করিবে, আমি তাকে শাস্তি দিবো।

[মুসলিম, ইবনি মাজাহ, হাকিম] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৫৫. হায়সাম ইবনি মালেক আত-তাই [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আমি নোমান ইবনি বশীর [রাঃআঃ]-কে মিম্বারের উপর বলিতে শুনিয়াছি, শয়তানের অনেক রকম জাল ও ফাঁদ আছে। শয়তানের জাল ও ফাঁদ হচ্ছে আল্লাহর নিয়ামত সম্পর্কে অহংকার করা, আল্লাহর দান সম্পর্কে গর্ব করা, আল্লাহর বান্দাগণের উপর অহংকার করা এবং আল্লাহর সত্তা ব্যতীত নিজের প্রবৃত্তির অনুসরণ করা

[বায়হাকীর শুআবুল ঈমান, জামে সগীর, ইবনি আসাকির]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান মাওকুফ

৫৫৬. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ বেহেশত ও দোযখ পরস্পর বিতর্ক ও বাদানুবাদে লিপ্ত হলো। দোযখ বললো, পরাক্রমশালী, স্বৈরাচারী ও অহংকারীরা আমার মধ্যে প্রবেশ করিবে। বেহেশত বললো, দুর্বল ও দরিদ্ররা আমার মধ্যে প্রবেশ করিবে। বরকতময় মহান আল্লাহ বেহেশতকে বলেন, তুমি হলে আমার রাহমাত, আমি যাকে ইচ্ছা তোমার মাধ্যমে অনুগ্রহ করবো। অতঃপর তিনি দোযখকে বলেন, তুমি হলে আমার শাস্তি। আমি যাকে ইচ্ছা তোর মাধ্যমে শাস্তি দিবো। তোদের দু’জনকেই পূর্ণ করা হইবে।

[বোখারী, মুসলিম, তিরমিজী, আহমাদ, ইবনি খুজাইমাহ, ইবনি হিব্বান] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৫৭. আবদুর রহমান [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

রাসূলুল্লাহ্ [সাঃআঃ]-এর সাহাবীগণ অশিষ্ট বা মনমরা ছিলেন না। তারা তাহাদের মজলিসসমূহে উত্তম কবিতা আবৃত্তি করিতেন এবং জাহিলী যুগের বিষয়াদি আলোচনা করিতেন। কিন্তু তাহাদের কাউকে আল্লাহর হুকুমের বিরুদ্ধাচরণ করাবার প্রয়াস চালানো হলে তার দৃষ্টি বিস্ফোরিত হয়ে যেতো। যেন তিনি এক উন্মাদ।

[ইবনি আবু শায় বাযযার] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

৫৫৮. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

এক অতিশয় সুন্দর ব্যক্তি নাবী [সাঃআঃ]-এর নিকট এসে বললো, সৌন্দর্য আমার অতি প্রিয়, আর আমাকে সৌন্দর্য দান করা হয়েছে যা আপনি দেখছেন। এমনকি আমি এতটুকুও পছন্দ করি না যে, জুতার ফিতা বা তার লাল অগ্রভাগের সৌন্দর্যের দিক দিয়েও কেউ আমাকে ডিংগিয়ে যাক। এটা কি অহংকার? তিনি বলেনঃ নাসায়ী, বরং অহংকার হলো সত্য থেকে বিমুখ হওয়া এবং মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করা।

[দারিমি, তিরমিজী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৫৯. আমর ইবনি শুআইব [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

মহানাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ কিয়ামতের দিন অহংকারীদেরকে পিপিলিকা সদৃশ [ক্ষুদ্রদেহ] মানুষরূপে হাশরের মাঠে সমবেত করা হইবে। তারা সব দিক থেকে লাঞ্ছনা পরিবেষ্টিত থাকিবে। তাহাদেরকে দোযখের বূলাস নামক কারাগারের দিকে হাঁকিয়ে নেয়া হইবে। তারা দোযখের আগুনে জ্বলতে থাকিবে এবং দোযখীদের [দেহ নিৰ্গত] ঘাম পান করিবে।

[তিরমিজী, নাসায়ী, আহমাদ] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

২৫২. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি যুলুমের প্রতিশোধ গ্রহণ করে।

৫৬০. আয়েশা [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] তাকে বলেনঃ তুমি তোমার প্রতিশোধ নাও।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৬১. আয়েশা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ]-এর স্ত্রীগণ ফাতেমা [রাঃআঃ]-কে নাবী [সাঃআঃ]-এর নিকট পাঠান। তিনি [গিয়ে] অনুমতি প্রার্থনা করেন। নাবী [সাঃআঃ] তখন আয়েশা [রাঃআঃ]-এর বিছানায় ছিলেন। তিনি তাকে প্রবেশের অনুমতি দিলেন। তিনি প্রবেশ করে বলেন, আপনার স্ত্রীগণ আবু কুহাফার কন্যার ব্যাপারে তাহাদের প্রতি সুবিচার প্রার্থনা করার জন্য আমাকে আপনার নিকট পাঠিয়েছেন। তিনি বলেনঃ হে আমার কন্যা! আমি যা ভালোবাসি তুমি কি তা ভালোবাসবে? তিনি বলেন, হাঁ। তিনি বলেনঃ তবে তুমি তাকে [আয়েশা] ভালোবাসবে। অতঃপর ফাতেমা [রাঃআঃ] উঠে চলে এলেন এবং বিষয়টি তাহাদের বলিলেন। তারা বলেন, তুমি আমাদের কোন উপকার করিতে পারলে না। তুমি আবার তাহাঁর কাছে যাও। তিনি বলেন, আল্লাহর শপথ! এই প্রসঙ্গে আমি আর কখনো তাহাঁর সাথে কথা বলবো না। অতঃপর তারা নাবী-পত্নী যয়নব [রাঃআঃ]-কে পাঠান। তিনি গিয়ে প্রবেশের অনুমতি প্রার্থনা করলে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাকে অনুমতি দিলেন। তিনি তখন সেই কথা তাহাঁকে বলেন। আয়েশা [রাঃআঃ] বলেন, যয়নব আমাকে গালি দিয়ে কথা বলিতে লাগলো। আমি অপেক্ষা করিতে থাকলাম যে, নাবী [সাঃআঃ] আমাকে [প্রতিউত্তরের] অনুমতি দেন কিনা। আমি যখন বুঝতে পারলাম যে, আমি প্রত্যুত্তর করলে তিনি অপছন্দ করবেন নাসায়ী, তখন আমিও যয়নবের উপর ঝাপিয়ে পড়লাম এবং তাকে পরাস্ত করে ছাড়লাম। তখন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] মুচকি হাসলেন এবং বললেনঃ সাবধান! সে তো আবু বাকরের কন্যা

। [মুসলিম, নাসায়ী, ইবনি মাজাহ] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৫৩. অনুচ্ছেদঃ দুর্ভিক্ষ ও ক্ষুৎপপাসার সময় সমবেদনা জ্ঞাপন।

৫৬২. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

শেষ যমানায় দুর্ভিক্ষ হইবে। যে ব্যক্তি সেই যুগ পাবে, সে যেন ক্ষুধার্ত প্রাণীদের প্রতি অবিচার না করে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

৫৬৩. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

আনসার সাহাবীগণ নাবী [সাঃআঃ]-কে বলেন, আমাদের এবং আমাদের [মুহাজির] ভাইদের মধ্যে খেজুর বাগান ভাগ করে দিন। তিনি বলেনঃ না। তারা বলেন, আপনারা আমাদের বাগানে মেহনত করুন, আপনাদের ভাগ দেবো। তারা [মুহাজিররা] বলেন, আমরা শুনলাম এবং মেনে নিলাম।

[বোখারী, মুসলিম, নাসায়ী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৬৪. আবদুল্লাহ ইবনি উমার [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

উমার ইবনুল খাত্তাব [রাঃআঃ] দুর্ভিক্ষের বছর বলেন, আর সেই বছরটি ছিল ভীষণ দুর্বিপাক ও কষ্টের। উমার [রাঃআঃ] পল্লী অঞ্চলের বেদুইনদের উট, খাদ্যশস্য ও তৈল প্রভৃতি সাহায্য সামগ্ৰী পৌঁছাবার চেষ্টা করেন। এমনকি তিনি গ্রামাঞ্চলের এক খণ্ড জমিও অনাবাদী পড়ে থাকতে দেননি এবং তার চেষ্টা ফলপ্রসূ হলো। উমার [রাঃআঃ] দোয়া করিতে দাঁড়িয়ে বলেন,

اللَّهُمَّ اجْعَلْ رِزْقَهُمْ

“হে আল্লাহ! আপনি তাহাদের রিযিক পর্বত চূড়ায় পৌছে দিন”।

আল্লাহ তার এবং মুসলমানদের দোয়া কবুল করিলেন। তখন বৃষ্টি বর্ষিত হলে তিনি বলেন, আলহামদু লিল্লাহ [সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর]। আল্লাহর শপথ! যদি আল্লাহ এই বিপর্যয় দূর না করিতেন, তবে আমি কোন সচ্ছল মুসলমান পরিবারকেই তাহাদের সাথে সম-সংখ্যক অভাবী লোককে যোগ না করে ছাড়তাম না। যতটুকু খাদ্যে একজন জীবন ধারণ করিতে পারে, তার সাহায্যে দু’জন লোক ধ্বংস থেকে রক্ষা পেতে পারে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৬৫. সালামা ইবনুল আকওয়া [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমাদের মধ্যে যে ব্যক্তি কোরবানী করে, সে যেন তৃতীয় দিনের পর এমন অবস্থায় ভোরে উপনীত না হয় যে, তার ঘরে কোরবানীর গোশতের কিছু অংশ অবশিষ্ট আছে। পরবর্তী বছর আসলে লোকেরা বললো, ইয়া রসূলাল্লাহ! আমরা গত বছর যেরূপ করেছিলাম, এ বছরও কি তদ্রুপ করবো? তিনি বলেনঃ নিজেরা খাও, অন্যকে খেতে দাও এবং জমা রাখো। [যেহেতু] ঐ বছর মানুষ দুর্ভিক্ষের কবলে পড়েছিল, তাই আমি চেয়েছিলাম যে, এই অবস্থায় তোমরা তাহাদের সাহায্য করো।

[বোখারী, মুসলিম] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৫৪. অনুচ্ছেদঃ অভিজ্ঞতা ও অনুশীলন।

৫৬৬. হিশাম ইবনি উরওয়া [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমি মুয়াবিয়া [রাঃআঃ]-এর নিকট বসা ছিলাম। তার মনে যেন কি চিন্তার উদ্রেক হলো। অতঃপর তিনি সচকিত হয়ে বলেন, অভিজ্ঞতা ও অনুশীলন দ্বারাই সহিষ্ণুতা অর্জিত হয়। কথাটি তিনি তিনবার বলেন।

[ইবনি আবু শায়বাহ, ইবনি হিব্বান] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ মাওকুফ

৫৬৭. আবু সাঈদ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ পদে পদে বাধাপ্রাপ্ত ব্যক্তিই সহনশীল ও ধৈর্যশীল হয় এবং অভিজ্ঞতা ছাড়া বিচক্ষণ ও প্রজ্ঞাবান হওয়া যায়। না

[বোখারী, তিরমিজী, আহমাদ, ইবনি হিব্বান] হাদিসটি এখানে আবু সাঈদ [রাঃআঃ]-র বক্তব্য হিসাবে উদ্ধৃত হলেও তা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর বাণী দেখুন তিরমিজী ২০৩৩ এবং মুসনাদে আহমাদ ১১০৭১ ও ১১৬৮৪ নং হাদিস [অনুবাদক]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৫৫. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি আল্লাহর ওয়াস্তে তার ভাইকে আহার করায়।

৫৬৮. আলী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

আমার কতক ভাইকে একত্র করে তাহাদেরকে আমার এক বা দুই সা পরিমাণ আহার করানো—তোমাদের বাজারে গিয়ে আমার একটি গোলাম [খরিদ করে তাবারানি] দাসত্বমুক্ত করার চেয়ে আমার নিকট অধিক প্রিয়।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৫৬. অনুচ্ছেদঃ জাহিলী যুগের পারস্পরিক চুক্তি।

৫৬৯. আবদুর রহমান ইবনি আওফ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

আমি আমার চাচাদের সাথে মুতাইয়্যাবীনের চুক্তিতে [হিলফুল ফুযূল] শরীক ছিলাম। বহুমূল্য লাল উটের বিনিময়েও তা লংঘন করা আমার পছন্দনীয় নয়

[আহমাদ হা/১৬৫৫ ও ১৬৭৬]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৫৭. অনুচ্ছেদঃ ভ্ৰাতৃ সম্পর্ক স্থাপন।

৫৭০. আনাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] ইবনি মাসউদ [রাঃআঃ] ও যুবাইর [রাঃআঃ]-র মধ্যে ভ্রাতৃ সম্পর্ক স্থাপন করিয়ে দেন

[আহমাদ]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৫৮. অনুচ্ছেদঃ ইসলামী যুগে সাবেক আমলের চুক্তি।

৫৭১. আনাস ইবনি মালেক [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমার মদীনার বাড়িতে আনসার ও মুহাজিরদের মধ্যে বন্ধুত্ব চুক্তি স্থাপন করেন

[বোখারী, মুসলিম, দারিমি]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৭২. আমর ইবনি শুয়াইব [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, মক্কা বিজয়ের বছর নাবী [সাঃআঃ] কাবা ঘরের সিঁড়িতে বসলেন। তিনি আল্লাহর প্রশংসা ও গুণগান করার পর বলেনঃ জাহিলী যুগে যার চুক্তি ছিল, ইসলাম তা আরো মজবুত করেছে এবং মক্কা বিজয়ের পর আর হিজরত নাই।

[তিরমিজী, আহমাদ, ইবনি খুজাইমাহ] হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৫৯. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি প্রথম বৃষ্টিতে ভিজলো।

৫৭৩. আনাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমরা রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর সংগে থাকা অবস্থায় আমাদের উপর বৃষ্টি বর্ষিত হইতে লাগলো। নাবী [সাঃআঃ] তাহাঁর দেহের উপরিভাগ থেকে কাপড় সরিয়ে দিলেন। ফলে তাহাঁর শরীর বৃষ্টিতে ভিজে গেলো। আমরা জিজ্ঞেস করলাম, আপনি কেন এরূপ করিলেন? তিনি বলেনঃ যেহেতু মহান প্রভুর কাছ থেকে সদ্য আগত [তাই আমি তা শরীরে লাগিয়ে নিলাম বরকতের জন্য]।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৬০. অনুচ্ছেদঃ ছাগল-ভেড়ার মধ্যে বরকত নিহিত।

৫৭৪. হুমাইদ ইবনি মালেক ইবনি খায়ছাম [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আমি আবু হুরাইরা [রাঃআঃ]-এর সাথে তার আকীক নামক স্থানের ভূমিতে বসা ছিলাম। তখন জন্তুযানে আরোহী একদল মদীনাবাসী তার নিকট উপস্থিত হন। তারা অবতরণ করিলেন। হুমাইদ [রাহিমাহুল্লাহ] বলেন, আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] আমাকে বলিলেন, আমার মায়ের নিকট গিয়ে বলো, আপনার পুত্র আপনাকে সালাম দিয়েছেন এবং বলেছেন, আমাদের কিছু আহার করান। রাবী বলেন, তিনি তিনটি যবের পিঠা, কিছু যায়তুন তৈল ও কিছু লবণ একটি পেয়ালায় করে দিলেন। আমি তা আমার মাথায় তুলে নিয়ে তাহাদের নিকট ফিরে এলাম। আমি তা তাহাদের সামনে রেখে দিলে আবু হুরাইরা [রাঃআঃ]

“আল্লাহু আকবার”

বলেন এবং আরো বলেন, সেই সত্তার প্রশংসা যিনি আমাদের রুটি খাওয়ালেন। নতুবা এমন একদিন ছিল যখন দু’টি কালো বস্তু অর্থাৎ খেজুর ও পানি ছাড়া আমাদের আর কিছু জুটতো না। এই খাদ্যে দলের লোকজনের কিছু হলো না। তারা চলে গেলে আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] আমাকে বলেন, হে ভাইপো! তোমার ছাগলগুলোর খুব যত্ন করো, এগুলোর গায়ের ধুলাবালি ঝেড়ে দাও, এগুলোর খোঁয়াড় পরিষ্কার রাখো এবং এর এক কোণে নামায পড়ো। কেননা এগুলো বেহেশতের জীবজন্তু। যাঁর হাতে আমার প্রাণ সেই সত্তার শপথ। অচিরেই লোকজনের উপর এমন এক সময় আসবে যখন এক পাল ছাগল তার মালিকের নিকট মারোয়ানের রাজপ্রাসাদের চেয়েও প্রিয়তর হইবে।

হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

৫৭৫. আলী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ ঘরে একটি বকরী একটি বরকতস্বরূপ, দুইটি বকরী দুইটি বরকতস্বরূপ এবং তিনটি বকরী অনেক বরকত।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ খুবই দুর্বল

২৬১. অনুচ্ছেদঃ উট তার মালিকের জন্য মর্যাদার উৎস।

৫৭৬. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ কুফরীর মূল পূর্ব দিকে [প্রাচ্যে], দম্ভ ও অহংকার উট ও ঘোড়ার পালের মালিকদের মধ্যে এবং বেদুইনদের মধ্যে যারা তাহাদের উটের পাল নিয়ে ব্যস্ত থাকে এবং দ্বীনের প্রতি মনোযোগী হয় না। আর প্রশান্তি ছাগলের মালিকের মধ্যে।

[বোখারী, মুসলিম] হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৭৭. ইবনি আব্বাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

কুকুর ও ছাগলের ব্যাপারে আমি বিক্ষিত হই। ছাগল বছরে এতো এতো সংখ্যক যবেহ করা হয়, এতো এতো সংখ্যক কোরবানী করা হয়। আর কুকুর, এক একটি মাদী কুকুর এতো এতো সংখ্যক শাবক প্রসব করে। অথচ ছাগলের সংখ্যা কুকুরের চেয়ে অধিক।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৭৮. আবু যাবয়ান [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

উমার ইবনুল খাত্তাব [রাঃআঃ] আমাকে বলেন, হে আবু যাবয়ান। তোমার রাষ্ট্ৰীয় ভাতার পরিমাণ কতো? আমি বললাম, আড়াই হাজার। তিনি তাকে বলেন, হে আবু যাবয়ান! কুরাইশ বংশের গোলামেরা তোমাদের শাসক হওয়ার পূর্বেই তুমি চাষাবাদ ও পশুপালনে মনোযোগী হও। তাহাদের সামনে ভাতা কোন উল্লেখযোগ্য সম্পদ নয়।

হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

৫৭৯. আবদা ইবনি হুযন [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

উট পালের মালিক ও বকরীর পালের মালিকগণ পরস্পর গর্ব প্রকাশ করছিল। নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ মূসা [আবু দাউদ] মেষপাল চরানো অবস্থায় নবুয়াত লাভ করেন। দাউদ [আবু দাউদ] মেষপাল চরানো অবস্থায় নবুয়াত লাভ করেন। আমিও আজয়াদ নামক স্থানে আমার পরিবারের মেষপাল চরানো অবস্থায় নবুয়াত লাভ করি।

[নাসায়ী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৬২. অনুচ্ছেদঃ যাযাবর জীবন।

৫৮০. আবু হুরাইরা [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

কবীর গুনাহ সাতটি। তার প্রথমটি আল্লাহর সাথে শরীক করা [২] নরহত্যা, [৩] সতী-সাধ্বী নারীর প্রতি যেনার মিথ্যা অপবাদ রটানো এবং [৪] হিজরতের পর পুনরায় যাযাবর জীবন বরণ করা।

হাদিসের তাহকিকঃ অন্যান্য

২৬৩. অনুচ্ছেদঃ বিরান জনপদে বসবাসকারী।

৫৮১. সাওবান [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] আমাকে বলেনঃ তুমি বিরানভূমিতে বসতি স্থাপন করো না। কেননা বিরানভূমির অধিবাসী যেন কবরের অধিবাসী। আহমাদ [রাহিমাহুল্লাহ] বলেন, কাফুর শব্দের অর্থ গ্রামাঞ্চল।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

৫৮২. সাওবান [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] আমাকে বলেছেনঃ হে সাওবান! বিরানভূমিতে বসবাস করো না। কেননা বিরানভূমির বাসিন্দা কবরের বাসিন্দা তুল্য।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

২৬৪. অনুচ্ছেদঃ মরুময় ভূমিতে বা পানির উৎসে বসবাস।

৫৮৩. মিকদাম ইবনি শুরায়হ [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

তিনি বলেন, আমি আয়েশা [রাঃআঃ]-কে মরু এলাকায় বসবাস সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলাম। আমি বললাম, নাবী [সাঃআঃ] কি মরুময় এলাকায় যেতেন! তিনি বলেনঃ তিনি [পাহাড়ের উপর থেকে নিচে প্রবাহিত] ঐসব পানির উৎসে যেতেন

[আবু দাউদ, মুসলিম, আহমাদ]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৮৪. আমর ইবনি ওয়াহব [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আমি মুহাম্মাদ ইবনি আবদুল্লাহ ইবনি উসাইদ [রাহিমাহুল্লাহ]-কে দেখেছি যে, তিনি ইহরাম অবস্থায় জন্তুযানে আরোহণ করলে, তার দুই কাঁধের উপর থেকে কাপড় তার দুই উরুর উপর রাখতেন। আমি বললাম, এটা কি? তিনি বলেন, আমি আবদুল্লাহ [রাঃআঃ]-কে এরূপ করিতে দেখেছি।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৬৫. অনুচ্ছেদঃ যে ব্যক্তি গোপনীয়তা রক্ষা পছন্দ করে এবং যে কোন লোকের সাথে তাহাদের বৈশিষ্ট্যাবলী অবহিত হওয়ার জন্য মেলামেশা করে।

৫৮৫. মুহাম্মাদ ইবনি আবদুল্লাহ ইবনি আবদুর রহমান ইবনি আবদুল কারী [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

উমার ইবনুল খাত্তাব [রাঃআঃ] ও এক আনসার ব্যক্তি একত্রে বসা ছিলেন। আবদুর রহমান ইবনি আবদুল কারী [রাহিমাহুল্লাহ] এসে তাহাদের নিকট বসলেন। উমার [রাঃআঃ] বলেন, যে ব্যক্তি আমাদের কথা অন্যদের কাছে পৌছায় আমরা তাকে পছন্দ করি না। আবদুর রহমান [রাহিমাহুল্লাহ] তাকে বলেন, হে আমীরুল মুমিনীন। আমি তাহাদের সাথে ওঠাবসা করি না। উমার [রাঃআঃ] বলেন, হাঁ, তুমি এর সাথে ওর সাথে ওঠাবসা করো, কিন্তু আমাদের [গোপন] কথা কোথাও ফাঁস করো না। অতঃপর তিনি আনসারীকে বলেন, আচ্ছা! আমার পরে কে খলীফা হইবে বলে লোকজন আলোচনা করে? আনসারী মুহাজিরদের বেশ কয়েকজনের নাম উল্লেখ করিলেন, কিন্তু তাতে আলী [রাঃআঃ]-এর নাম উল্লেখ করেননি? উমার [রাঃআঃ] বলেন, তারা হাসানের পিতার [আলীর] কথা বলে না কেন? আল্লাহর শপথ তিনি তাহাদের শাসনভার প্রাপ্ত হলে তিনিই তাহাদের সত্য পথে সুপ্রতিষ্ঠিত রাখার ব্যাপারে সর্বাধিক যোগ্য।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৬৬. অনুচ্ছেদঃ কাজেকর্মে তাড়াহুড়া বৰ্জনীয়।

৫৮৬. হাসান বসরী [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

এক ব্যক্তি মৃত্যুকালে একটি পুত্র সস্তান ও একটি মুক্তদাস রেখে যায়। সে তার পুত্রের বিষয়ে তার মুক্তদাসকে ওসিয়াত করে যায়। সে তার ব্যাপারে কোন অবহেলা করেনি। ছেলেটি বালেগ হলে সে তাকে বিবাহও করায়। সে মুক্তদাসকে বললো, আমার সফরের আয়োজন করে দাও। আমি জ্ঞান অন্বেষণ করবো। সে তার সফরের আয়োজন করে দিলো। অতএব সে একজন আলেমের নিকট এসে তার কাছে জ্ঞানদানের আবেদন করলো। আলেম ব্যক্তি তাকে বলেন, তোমার ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে তখন আমাকে বলবে, আমি তোমাকে জ্ঞানের কথা শিখাবো। সে আলেমকে বললো, আমার প্রত্যাবর্তনের সময় হয়েছে। আপনি আমাকে জ্ঞানের কথা শিখিয়ে দিন। আলেম বলেন,

“তুমি আল্লাহকে ভয় করো, ধৈর্য ধরো এবং [কোন ব্যাপারে] তাড়াহুড়া করো না”।

হাসান [রাহিমাহুল্লাহ] বলেন, এতে সার্বিক কল্যাণ নিহিত রহিয়াছে। সে যখন ফিরে এলো তখন তা তার স্মরণে ছিল। কেননা কথা ছিল মাত্র তিনটি। সে তার পরিবারে পৌছে সওয়ারী থেকে অবতরণ করলো। সে ঘরে ঢুকে দেখলো যে, একটি পুরুষলোক শিথিল অবস্থায় একটি নারীর অদূরে ঘুমিয়ে আছে। আর সেই নারী হচ্ছে তারই স্ত্রী। সে মনে মনে বললো, আল্লাহর শপথ! এই দৃশ্য দেখার পর আর কিসের অপেক্ষা করবো। সে তার সওয়ারীর কাছে ফিরে এলো। তরবারি নিতে গিয়ে তার স্মরণ হলো, “আল্লাহকে ভয় করো, ধৈর্য ধরে এবং তাড়াহুড়া করো না”। সে আবার ফিরে গিয়ে তার শিয়রের নিকট দাঁড়িয়ে বললো, এমন দৃশ্য দেখার পর আর মোটেও অপেক্ষা করবো না। সে তার সওয়ারীর নিকট ফিরে এলো এবং তরবারি তুলতে যেতেই উপদেশের কথা স্মরণ হলো। পুনরায় সে তার নিকট ফিরে গেলো। সে তার শিয়রের নিকট দাড়াতেই নিদ্রিত ব্যক্তি জেগে উঠলো এবং তাকে দেখে জড়িয়ে ধরে আলিঙ্গন করলো, তার কুশলাদি জিজ্ঞেস করলো। সে বললো, আমার নিকট থেকে যাওয়ার পর আপনি কেমন ছিলেন? সে বললো, আল্লাহর শপথ! তোমার নিকট থেকে যাওয়ার পর আমি পর্যাপ্ত কল্যাণ লাভ করেছি, আল্লাহর শপথ। ভালোই। আজ রাতে আমি মোট তিনবার তরবারি ও তোমার মাথার মাঝে যাতায়াত করেছি এবং যে জ্ঞান আমি অর্জন করেছি, তোমাকে হত্যা করার ব্যাপারে তা আমার প্রতিবন্ধক হয়েছে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

২৬৭. অনুচ্ছেদঃ কাজেকর্মে ধীরস্থিরতা।

৫৮৭. আবদুল কায়েস গোত্রের আশাজ্জ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বললেনঃ তোমার মধ্যে এমন দুইটি অভ্যাস আছে যা আল্লাহর পছন্দনীয়। আমি বললাম, ইয়া রসূলাল্লাহ! তা কি কি? তিনি বলেনঃ সহিষ্ণুতা ও লজ্জাশীলতা। আমি বললাম, এই দুইটি অভ্যাস পূর্ব থেকে আমার মধ্যে ছিল না নতুনভাবে দেখছেন? তিনি বলেনঃ পূর্ব থেকে। আমি বললাম, সকল প্রশংসা আল্লাহর, যিনি আমার মধ্যে জন্মগতভাবে এমন দু’টি অভ্যাস সৃষ্টি করিয়াছেন যা আল্লাহ পছন্দ করেন।

[নাসায়ী, আবু ইয়ালা] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৮৮. আবু সাঈদ খুদরী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] আবদুল কায়েস গোত্রের [প্রতিনিধি দলের নেতাবারানি] আশাজ [রাঃআঃ]-কে বলেনঃ তোমার মধ্যে এমন দুইটি অভ্যাস আছে যা আল্লাহ পছন্দ করেন। তা হলো সহিষ্ণুতা ও ধীরস্থিরতা।

[মুসলিম] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৮৯. ইবনি আব্বাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] আবদুল কায়েস গোত্রের [প্রতিনিধি দলের নেতাবারানি] আশাজ্জ [রাঃআঃ]-কে বললেনঃ তোমার মধ্যে এমন দুটি বৈশিষ্ট্য আছে যা আল্লাহ পছন্দ করেন, সহিষ্ণুতা ও ধীরস্থিরতা।

[মুসলিম, তিরমিজী, ইবনি হিব্বান, আবু আওয়া নাসায়ী] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৯০. মায়ীদা আল-আবদী [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আশাজ্জ [রাঃআঃ] পদব্রজে এসে নাবী [সাঃআঃ]-এর হাত ধরে তাতে চুমা দিলেন। নাবী [সাঃআঃ] তাকে বলেনঃ জেনে রাখো, তোমার মধ্যে এমন দু’টি স্বভাব রহিয়াছে যা আল্লাহ ও তাহাঁর রাসূলের খুবই মনঃপুত। আশাজ্জ [রাঃআঃ] বলেন, ঐগুলি কি আমার প্রকৃতিগত না আমার চরিত্রগত? তিনি বলেনঃ নাসায়ী, ঐগুলি তোমাকে প্রকৃতিগতভাবেই দান করা হয়েছে। আশাজ্জ [রাঃআঃ] বলেন, সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর, যিনি আমাকে প্রকৃতিগতভাবেই এমন স্বভাব দান করিয়াছেন, যা আল্লাহ ও তাহাঁর রসূলের মনঃপুত।

[বোখারীর তারীখুল কাবীর] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ দুর্বল হাদিস

২৬৮. অনুচ্ছেদঃ বিদ্রোহ।

৫৯১. ইবনি আব্বাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

যদি এক পাহাড় অন্য পাহাড়ের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করতো, তবে বিদ্রোহী পাহাড় একাকার হয়ে যেতো

[তাফসীরে রূহুল মাআনী, সূরা ইউনুস, জামে সগীর, শুয়াবুল ঈমান]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৯২. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ দোযখ ও বেহেশত বিতর্কে লিপ্ত হলো। দোযখ বললো, অহংকারী ও পরাক্রমশালী স্বৈরাচারীরা আমার মধ্যে প্রবেশ করিবে। বেহেশত বললো, দুর্বল ও নিঃস্বরাই আমার মধ্যে প্রবেশ করিবে। আল্লাহ তায়ালা দোযখকে বলেন, তুই হলি আমার আযাব। যার থেকে ইচ্ছা আমি তোর মাধ্যমে প্রতিশোধ নিবো। তিনি বেহেশতকে বলেন, তুমি আমার রহমাত, যাকে ইচ্ছা আমি তোমার মাধ্যমে অনুগ্রহ করবো।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৯৩. ফাদালা ইবনি উবাইদ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ তিন ব্যক্তিকে কোনরূপ জিজ্ঞাসাবাদ করা হইবে না [সরাসরি দোযখে নিক্ষিপ্ত হইবে]। [১] যে ব্যক্তি জামাআত থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলো এবং তার ইমামের [নেতার] অবাধ্য হলো এবং অবাধ্য অবস্থায় মারা গেলো। তাকে কোনরূপ জিজ্ঞাসাবাদ করা হইবে না। [২] যে ক্রীতদাসী বা ক্রীতদাস তার মনিবের নিকট থেকে পালিয়ে গেলো। [৩] যে নারীর স্বামী বহির্দেশে গিয়েছে, সে যদি তার অনুপস্থিতিতে তার রূপ-যৌবনের পসরা করে বেড়ায় এবং ভ্রষ্টা হয়। আরো তিন ব্যক্তিকে কোনরূপ জিজ্ঞাসাবাদ করা হইবে না। [১] যে ব্যক্তি আল্লাহর চাদর নিয়ে টানাহেঁচড়া করে। আর তাহাঁর চাদর হচ্ছে অহংকার এবং তাহাঁর পরিধেয় হচ্ছে তাহাঁর ইজ্জত। [২] যে ব্যক্তি আল্লাহর হুকুমের মধ্যে সন্দেহ পোষণ করে। [৩] যে ব্যক্তি আল্লাহর রহমাত থেকে নিরাশ হয়।

[আবু দাউদ] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৯৪. বাক্কার ইবনি আবদুল আযীয [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ আল্লাহ তার মর্যিমাফিক গুনাহসমূহের মধ্যে যে কোন গুনাহের শাস্তি প্রদান কিয়ামত পর্যন্ত বিলম্বিত করিতে পারেন। কিন্তু তিনি বিদ্রোহ, পিতা-মাতার অবাধ্যাচরণ ও আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করার গুনাহর শাস্তি অপরাধীর মৃত্যুর পূর্বেই এই দুনিয়াতে দিয়ে থাকেন

[দারিমি, তিরমিজী]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৫৯৫. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

তোমাদের কেউ তো তার ভাইয়ের চোখের মধ্যকার সামান্য ধুলিকণাও দেখিতে পায়, কিন্তু তার নিজের চোখে আস্ত একটা কড়িকাঠ বা গুড়ি পড়ে থাকলেও তা দেখিতে পায় না।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ মাওকুফ

৫৯৬. মুয়াবিয়া ইবনি কুররা [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আমি মাকিল আল-মুযানী [রাঃআঃ]-এর সাথে ছিলাম। তিনি রাস্তা থেকে কষ্টদায়ক বস্তু অপসারণ করিলেন। অতঃপর আমিও রাস্তায় কিছু একটা দেখে তা সরালাম। তিনি বলেন, হে ভ্রাতুষ্পুত্র! তোমাকে কিসে এই কাজ করিতে উদ্বুদ্ধ করেছে? আমি বললাম, আপনাকে এরূপ করিতে দেখে আমিও তাই করলাম। তিনি বলেন, হে ভ্রাতুষ্পুত্র! তুমি খুব উত্তম কাজ করেছো। আমি নাবী [সাঃআঃ]-কে বলিতে শুনেছিঃ যে ব্যক্তি মুসলমানদের রাস্তা থেকে কষ্টদায়ক বস্তু অপসারণ করে, তার জন্য একটি সওয়াব লেখা হয়। আর যার একটি সওয়াবের কাজ কবুল হয়, সে বেহেশতে প্রবেশ করিবে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

২৬৯. অনুচ্ছেদঃ উপহারাদি গ্রহণ।

৫৯৭. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ তোমরা পরস্পর উপহারাদি বিনিময় করো, তোমাদের পারস্পরিক মহব্বত সৃষ্টি হইবে

[যায়লাঈ ও সুয়ুতীর মতে আবু ইয়ালা, নাসায়ীর কিতাবুল কুনাসায়ী, শুআবুল ঈমান, ইবনি আদীর কামিল]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ হাসান হাদিস

৫৯৮. সাবিত [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

আনাস [রাঃআঃ] বলিতেন, হে বৎসগণ! তোমরা পরস্পরের জন্য অর্থ-সম্পদ ব্যয় করো, তা তোমাদের মধ্যে সদ্ভাব সৃষ্টির উপায় হইবে।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৭০. অনুচ্ছেদঃ মানুষের মধ্যে ঘৃণা-বিদ্বেষ সৃষ্টি হওয়ার কারণে যে ব্যক্তি উপহারাদি বর্জন করে।

৫৯৯. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

ফাযারা গোত্রের এক ব্যক্তি নাবী [সাঃআঃ]-কে একটি উস্ত্রী উপহার দিলো। তিনিও তাকে প্রতিদান দিলেন। তাতে সে অসন্তুষ্ট হলো। আমি নাবী [সাঃআঃ]-কে মিম্বারে দাড়িয়ে বলিতে শুনেছিঃ আমাকে তোমাদের কেউ হাদিয়া দিলে আমিও আমার সামর্থ্য অনুসারে তাকে প্রতিদান দিয়ে থাকি। তাতে সে অসন্তুষ্ট হয়। আল্লাহর শপথ! এই বছরের পর আমি কুরাশী, আনসারী, সাকাকী ও দাওসী গোত্র ছাড়া কোন বেদুইনের হাদিয়া গ্রহণ করবো না।

[তিরমিজী, আবু দাউদ, নাসায়ী, আহমাদ, বাযযার, ইবনি হ্বিবান] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

২৭১. অনুচ্ছেদঃ লজ্জাশীলতা।

৬০০. আবু মাসউদ [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ নবুয়াতী কথার মধ্যে মানুষ যা পেয়েছে তাতে এও আছে, “তুমি নির্লজ্জ হইতে পারলে যাচ্ছে তাই করিতে পারো”

। [বোখারী, আবু দাউদ, ইবনি মাজাহ, আহমাদ, ইবনি হিব্বান, তাবারানি] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০১. আবু হুরাইরা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ ঈমানের ষাট বা সত্তরের অধিক শাখা আছে। তার মধ্যে সবোৎকৃষ্ট শাখা হলো

لَا إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ

“লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ” [আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেই]

এবং তার সর্বনিম্ন শাখা হলো রাস্তা থেকে কষ্টদায়ক বস্তু অপসারণ করা। লজ্জাশীলতাও ঈমানের একটি বিশেষ শাখা

-[বোখারী, মুসলিম]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০২. আবু সাঈদ আল-খুদরী [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] অন্দর মহলের পর্দানশীন কুমারী মেয়ের চেয়েও অধিক লজ্জাশীল ছিলেন। তিনি কোন কিছু অপছন্দ করলে তাহাঁর চেহারা দর্শনেই আমরা তা বুঝতে পারতাম

-[বোখারী, মুসলিম, ইবনি মাজাহ]। আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০৩. উসমান [রাঃআঃ] ও আয়েশা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

আবু বাকর [রাঃআঃ] রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর সাক্ষাত প্রার্থনা করিলেন। তিনি তখন আয়েশা [রাঃআঃ]-এর একটি চাদর পরিহিত অবস্থায় তার বিছানায় শায়িত ছিলেন। তিনি এই অবস্থায় থাকতেই আবু বাকর [রাঃআঃ]-কে সাক্ষাতের অনুমতি দিলেন। আবু বাকর [রাঃআঃ] তার সাথে নিজ প্রয়োজন সেড়ে চলে গেলেন। অতঃপর উমার [রাঃআঃ] এসে তার সাথে সাক্ষাত প্রার্থনা করিলেন। তিনি শায়িত অবস্থায় তাকেও অনুমতি দিলেন। তিনিও তার সাথে প্রয়োজন সেড়ে চলে গেলেন। উসমান [রাঃআঃ] বলেন, অতঃপর আমি তার সাথে সাক্ষাত প্রার্থনা করলাম। তিনি উঠে বসে আয়েশা [রাঃআঃ]-কে বলেনঃ তুমি তোমার কাপড়-চোপড় গুছিয়ে নাও। উসমান [রাঃআঃ] বলেন, আমিও তার সাথে নিজ প্রয়োজন সেড়ে বিদায় নিলাম। আয়েশা [রাঃআঃ] বলেন, ইয়া রসূলাল্লাহ! আমি দেখলাম, আপনি আবু বাকর ও উমার [রাঃআঃ]-র আগমনে শংকিত বা সতর্ক হননি, যতটা হয়েছেন উসমান [রাঃআঃ]-এর আগমনে। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ উসমান অতিশয় লজ্জাশীল প্রকৃতির লোক। আমি আশংকা করলাম, যদি আমি তাকে এই অবস্থায় ঘরে ঢোকার অনুমতি দেই তবে সে তার প্রয়োজন নিয়ে আমার নিকট পৌঁছতো না।

[মুসলিম, মুশকিলুল আসার] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০৪. আনাস [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ নির্লজ্জতা ও অশ্লীলতা কোন বস্তুর কেবল কদৰ্যতাই বৃদ্ধি করে। আর লজ্জা কোন জিনিসের সৌন্দর্যই বৃদ্ধি করে।

[আহমাদ, ইবনি মাজাহ] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০৫. সালেম [রাহিমাহুল্লাহ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এক ব্যক্তির নিকট দিয়ে যাচ্ছিলেন। সে তার ভাইকে লজ্জাশীলতার বিরুদ্ধে নসীহত করছিল। নাবী [সাঃআঃ] বলেনঃ তাকে ছাড়ো। কেননা লজ্জাশীলতা ঈমানের অন্তর্ভুক্ত।

[মুসলিম, মুসনাদ আহমাদ] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০৬. আবদুল্লাহ ইবনি উমার [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

নাবী [সাঃআঃ] এক লোকের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। লোকটি লজ্জা সম্পর্কে তার ভাইকে তিরস্কার করে বলছিলঃ তুমি খুবই লাজুক, এতে তোমার দারুণ ক্ষতি হইবে। তখন রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ তাকে ছেড়ে দাও। কেননা লজ্জা ঈমানের অংশ।

আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

৬০৭. আয়েশা [রাঃআঃ] হইতে বর্ণীত

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তার ঘরে শোয়া ছিলেন। তার উরু অথবা পা খোলা ছিলো। আবু বাকর [রাঃআঃ] এসে অনুমতি চাইলে তিনি তাকে অনুমতি দিলেন এবং এ অবস্থাতেই কথাবার্তা বলেন। এরপর উমার [রাঃআঃ] অনুমতি চাইলে তিনি তাকেও অনুমতি দিলেন এবং এ অবস্থায় কথাবার্তা বলেন। অতঃপর উসমান [রাঃআঃ] অনুমতি চাইলে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] উঠে বসলেন এবং কাপড় ঠিক করিলেন। রাবী মুহাম্মাদ বলেন, এ ব্যাপারটি একই দিনে ঘটেছে বলে আমি বলিতে পারি না। এরপর উসমান [রাঃআঃ] এসে কথাবার্তা বলেন। তিনি চলে যাওয়ার পর আয়েশা [রাঃআঃ] বলেন, আবু বকর [রাঃআঃ] এলেন, আপনি কোন খেয়াল করিলেন না। উমার [রাঃআঃ] এলেন, আপনি কোন খেয়াল করিলেন না। উসমান [রাঃআঃ] আসতেই আপনি উঠে বসলেন এবং কাপড় ঠিক করে নিলেন। রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ আমি কি সে ব্যক্তিকে লজ্জা করবো না ফেরেশতারা যাকে লজ্জা করে থাকেন।

[মুসলিম, মুশকিলুল আসার] আল আদাবুল মুফরাদ PDF হাদিসের তাহকিকঃ সহীহ হাদিস

By ইমাম বুখারী

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply