কোন লোকই তার আমালের দ্বারা জান্নাতে যেতে পারবে না

কোন লোকই তার আমালের দ্বারা জান্নাতে যেতে পারবে না

কোন লোকই তার আমালের দ্বারা জান্নাতে যেতে পারবে না >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

১৭. অধ্যায়ঃ কোন লোকই তার আমালের দ্বারা জান্নাতে যেতে পারবে না , বরং আল্লাহর রহমতের মাধ্যমে জান্নাতে যাবে

৭০০৪. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.]-এর সূত্রে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, তোমাদের কোন লোকের আমলই তাকে পরিত্রাণ দিতে পারবে না। এ কথা শুনে এক লোক বলিলেন, হে আল্লাহর রসূল! আপনাকেও না? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ, আমাকেও না। তবে যদি আল্লাহ তাআলা তাহাঁর করুণা দ্বারা আমাকে ঢেকে নেন। তোমরা অবশ্য সঠিক পন্থা অবলম্বন করিবে।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯০৭]

৭০০৫. বুকায়র ইবনি আশাজ্জ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] থেকে এ সূত্র হইতে বর্ণীতঃ

অবিকল হাদীস বর্ননা করিয়াছেন। তবে এতে بِرَحْمَةٍ مِنْهُ  [তার করুণা]-এর সঙ্গে وَفَضْلٍ [অনুগ্রহ] শব্দটিও উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু তাতে سَدِّدُوا [সঠিক পন্থা অবলম্বন কর] শব্দটি বিদ্যমান নেই।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯০৮]

৭০০৬. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] বলেনঃ তোমাদের মাঝে এমন কোন লোক নেই, যার আমল তাকে জান্নাতে দাখিল করাতে পারে। অতঃপর তাঁকে জিজ্ঞস করা হলো, হে আল্লাহর রসূল! আপনিও কি নন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ আমিও নই। তবে আল্লাহ যদি তাহাঁর অনুগ্রহ দ্বারা আমাকে আবৃত করে নেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯০৯]

৭০০৭. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, নবী [সাঃআঃ] বলেছেনঃ , তোমাদের মাঝে এমন কোন লোক নেই, যার আমল তাকে নাযাত দিতে পারে। সহাবাগণ জিজ্ঞেস করিলেন, হে আল্লাহর রসূল! আপনিও কি নন? জবাবে তিনি বলিলেন, আমিও নই। তবে যদি আল্লাহ তাআলা আমাকে তাহাঁর মার্জনা ও করুণা দ্বারা ঢেকে নেন।

রাবী ইবনি আওন [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] নিজ হাত দ্বারা নিজ মাথার দিকে ইশারা করে বলিলেন, আমিও না। হ্যাঁ, যদি আল্লাহ তাআলা তাহাঁর মার্জনা ও করুণা দ্বারা আমাকে ঢেকে ফেলেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৩, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১০]

৭০০৮. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ এমন কোন লোক নেই, যার আমল তাকে মুক্তি দিতে পারে। তারা বলিলেন, হে আল্লাহর রসূল! আপনিও নি নন? তিনি বলেনঃ , আমিও নই। একমাত্র প্রত্যাশা এই যে, যদি আল্লাহ তাআলা আমাকে তাহাঁর করুণা দ্বারা সহায়তা করেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৪, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১১]

৭০০৯. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেনঃ : তোমাদের কারো আমল তাকে জান্নাতে প্রবেশ করাতে পারবে না। সহাবাগণ বলিলেন, হে আল্লাহর রসূল! আপনিও কি নন? তিনি বললেনঃ আমিও নই। তবে যদি আল্লাহ তাআলা আমাকে তাহাঁর অনুগ্রহ ও করুণা দ্বারা ঢেকে নেন। [ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৫, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১২]

৭০১০. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ তোমরা সঠিক পথে কায়িম থাকো এবং কমপক্ষে তার কাছাকাছি থাক। নিশ্চিতভাবে তোমরা জেনে রাখো, তোমাদের কেউ আমালের দ্বারা মুক্তি পাবে না। সহাবাগণ বলিলেন, হে আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ]! আপনিও নন? তিনি বলিলেন, হ্যাঁ, আমিও নেই। তবে আল্লাহ তাআলা যদি স্বীয় রহ্মাত ও অনুগ্রহ দ্বারা আমাকে ঢেকে রাখেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৬, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৩]

৭০১১. জাবির [রাদি.]-এর সানাদে নবী [সাঃআঃ] হইতে বর্ণীতঃ

অবিকল বর্ণনা করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৭, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৪]

৭০১২. আমাশ [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

ইবনি নুমায়র [রহমাতুল্লাহি আলাইহি]-এর অবিকল বর্ণনা করিয়াছেন।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৮, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৫]

৭০১৩. আবু হুরাইরাহ্ [রাদি.]-এর সানাদ হইতে বর্ণীতঃ

নবী [সাঃআঃ] হইতে অবিকল বর্ণনা করিয়াছেন, তবে তাতে বর্ধিত আছে [আর-বী] অর্থাৎ- তোমরা সুসংবাদ গ্রহণ কর।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৫৯, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৬]

৭০১৪. জাবির [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, আমি নবী [সাঃআঃ]-কে বলিতে শুনেছি যে, তোমাদের কোন লোক তার আমল দ্বারা জান্নাতে প্রবেশ করিতে পারবে না এবং জাহান্নাম থেকে মুক্তি পাবে না। আর আল্লাহর রহমাত ব্যতীত আমি নিজেও বাঁচতে পারব না।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৬০, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৭]

৭০১৫. নবী [সাঃআঃ]-এর সহধর্মিণী আয়িশাহ্ [রাদি.] হইতে বর্ণীতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেনঃ মধ্যম পন্থা অবলম্বন কর, এর কাছাকাছি পথে থেকো এবং সুসংবাদ গ্রহন কর, কারো আমলই তাকে জান্নাতে দাখিল করাতে পারবে না। সহাবাগণ জিজ্ঞেস করিলেন, হে আল্লাহর রসূল! আপনিও কি নন? তিনি বলিলেন, আমিও নই। তবে হ্যাঁ, যদি আল্লাহ তাআলা আমাকে তাহাঁর রহ্মাত দ্বারা ঢেকে নেন। তোমরা জেনে রাখো, নিয়মিত আমলই আল্লাহর কাছে সবচেয়ে বেশী পছন্দের আমল, যদিও তা পরিমাণে কম হয়।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৬১, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৮]

হাসান আল হুলওয়ানী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] ….. মূসা ইবনি উক্বাহ্ [রাদি.] থেকে এ সূত্রে অবিকল হাদীস বর্ননা করিয়াছেন। কিন্তু তাতে তারা [আরবী] [সুসংবাদ গ্রহণ কর] শব্দটি বর্ণনা করেননি।

[ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৬৮৬২, ইসলামিক সেন্টার- ৬৯১৯]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply