আমল বিনষ্ট হওয়া সম্পর্কে মুমিনের আশঙ্কা

আমল বিনষ্ট হওয়া সম্পর্কে মুমিনের আশঙ্কা

আমল বিনষ্ট হওয়া সম্পর্কে মুমিনের আশঙ্কা  >> সহীহ মুসলিম শরীফ এর মুল সুচিপত্র দেখুন >> নিম্নে মুসলিম শরীফ এর একটি অধ্যায়ের হাদিস পড়ুন

৫২. অধ্যায়ঃ আমল বিনষ্ট হওয়া সম্পর্কে মুমিনের আশঙ্কা

২১৪

আনাস ইবনি মালিক [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, যখন এ আয়াত নাযিল হলো,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا لاَ تَرْفَعُوا أَصْوَاتَكُمْ فَوْقَ صَوْتِ النَّبِيِّ

“হে মুমিনগণ! তোমরা নবির কণ্ঠের উপর নিজেদের কণ্ঠ উঁচু করিবে না এবং নিজেদের মধ্যে যেভাবে উচ্চৈঃস্বরে কথা বল তাহাঁর সাথে সেরূপ উচ্চৈঃস্বরে কথা বলবে না; এতে তোমাদের আমাল বিনষ্ট হয়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে অথচ তোমরা টেরও পাবে না”- [সূরাহ আল হুজুরাত ৪৯ : ২]। তখন সাবিত [রাঃআ:] নিজের ঘরে বসে গেলেন এবং বলিতে লাগলেন, আমি একজন জাহান্নামী। এরপর থেকে তিনি রসুলুল্লাহ [সাঃআ:]-এর কাছে যাওয়া বন্ধ করে দিলেন। একদিন রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] সহাবা সাদ ইবনি মুআযকে সাবিত [রাঃআ:] সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে বলিলেন, হে আবু আম্‌র! সাবিতের কি হলো? সাদ [রাঃআ:] বলিলেন, সে আমার প্রতিবেশী, তার কোন অসুখ হয়েছে বলে তো জানি না। আনাস [রাঃআ:] বলেন, পরে সাদ [রাঃআ:] সাবিতের কাছে গেলেন এবং তাহাঁর সম্পর্কে রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:]-এর বক্তব্য উল্লেখ করিলেন। সাবিত [রাঃআ:] বলেন, এ আয়াত নাযিল হয়েছে। আর তোমরা জান রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] এর উপর আমার কষ্ঠস্বরই সবচেয়ে উঁচু হয়ে যায়। সুতরাং আমি তো জাহান্নামী। সাদ [রাঃআ:] রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:]-এর কাছে এসে সাবিতের কথা বলিলেন। রসূলুল্লাহ্‌ [সাঃআ:] তখন বলিলেন, না, বরং সে তো জান্নাতী। [ই.ফা. ২১৫; ই.সে. ২২২]

২১৫

আনাস ইবনি মালিক [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

সাবিত ইবনি কায়স ইবনি শাম্মাস ছিলেন আনসারদের খতীব। যখন এ আয়াত নাযিল হলো : “তোমরা নবির কণ্ঠের উপর নিজেদের কণ্ঠ উঁচু করো না”। বাকী অংশ হাম্মাদ বর্ণিত উল্লেখিত রিওয়ায়াতের অনুরূপ। তবে এ রিওয়ায়াতে সাদ ইবনি মুআয এর উল্লেখ নেই।

আহমদ ইবনি সাঈদ ইবনি সাখ্‌র আদ্‌ দারিমী [রহমাতুল্লাহি আলাইহি] ….. আনাস ইবনি মালিক [রাঃআ:] হইতে বর্ণিত যে, যখন এ আয়াত নাযিল হলো : অর্থাৎ “তোমরা নবির কণ্ঠের উপর নিজেদের কণ্ঠ উঁচু করো না”। এ বর্ণনায় সাদ ইবনি মুআয-এর উল্লেখ নেই। [ই.ফা. ২১৬; ই.সে. ২২৩-২২৪]

২১৬

আনাস [রাঃআ:] হইতে বর্ণিতঃ

যখন এ আয়াত নাযিল হলো…। এতেও সাদ ইবনি মুআয-এর উল্লেখ নেই। তবে শেষে আছে, আমরা তাঁকে ভাবতাম, একজন জান্নাতী লোক আমাদের মাঝে বিচরণ করছেন। [ই.ফা. ২১৭; ই.সে. ২২৫]

By মুসলিম শরীফ

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই এই পোস্ট টি উপরের Facebook বাটনে এ ক্লিক করে শেয়ার করুন অশেষ সাওয়াব হাসিল করুন

Leave a Reply