নাজাসাত অপবিত্রতা দূরীকরণ ও তার বিবরণ

নাজাসাত অপবিত্রতা দূরীকরণ ও তার বিবরণ

 নাজাসাত অপবিত্রতা দূরীকরণ ও তার বিবরণ >> বুলুগুল মারাম এর মুল সুচিপত্র দেখুন

অধ্যায় -৩ঃ নাজাসাত অপবিত্রতা দূরীকরণ ও তার বিবরণ

পরিচ্ছেদ ২০. মদ বা শরাবের অপবিত্রতা
পরিচ্ছেদ ২১. গৃহপালিত গাধার [গোশত] অপবিত্র
পরিচ্ছেদ ২২. উটের মুখের লালা পবিত্র
পরিচ্ছেদ ২৩. কাপড় থেকে বীর্য দূরীকরণের পদ্ধতি
পরিচ্ছেদ ২৪. শিশু ছেলে ও মেয়ের পেশাব যুক্ত কাপড় পবিত্রকরণের পদ্ধতি
পরিচ্ছেদ ২৫. [মহিলাদের] ঋতুস্রাব রক্তের কাপড় পবিত্রকরণের পদ্ধতি
পরিচ্ছেদ ২৬. মহিলাদের ঋতুস্রাব ধৌত করার পর [কাপড়ে] এর চিহ্ন মার্জনীয়

পরিচ্ছেদ ২০. মদ বা শরাবের অপবিত্রতা

২৪- আনাস বিন মালিক [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] জিজ্ঞাসিত হয়েছিলেন,`মদকে কি সিরকায় রূপান্তর করা যায়?’ তিনি [সাঃআঃ] বলিলেন,`না’। -মুসলিম ও তিরমিজি। তিনি একে হাসান সহিহ বলেছেন। {৩৩}

{৩৩} মুসলিম [১৯৮৩] । হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২১. গৃহপালিত গাধার [গোশত] অপবিত্র

২৫- আনাস [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আবূ তালহাকে [রাঃআঃ] -আল্লাহর রসূল [সাঃআঃ] খাইবার যুদ্ধে [লোকেদের মাঝে] এমর্মে ঘোষণা করিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন যে, নিশ্চয় আল্লাহ তা’আলা ও তার রসূল [সাঃআঃ] তোমাদেরকে গাধার গোশত হতে নিষেধ করিয়াছেন। কেননা তা অপবিত্র। {৩৪}

{৩৪} বুখারী [২৯৯১]; মুসলিম [১৯৪০] মুহাম্মাদ বিন সীরীন সূত্রে আনাস [রাঃআঃ] হতে। ইমাম মুসলিম [আরবী] শয়তানের কাজ’ কথাটি বৃদ্ধি করিয়াছেন। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২২. উটের মুখের লালা পবিত্র

২৬- আমর বিন খারিজাহ [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] মিনায় আমাদের মাঝে আরোহীর পিঠে সওয়ার অবস্থায় খুৎবাহ প্রদান করছিলেন আর তার উটের [মুখ নিঃসৃত] লালা আমার দুকাধের উপর চুয়ে পড়ছিল। [তিরমিজি হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন] {৩৫}

{৩৫} আবূ দাউদ [৪৮৭] তিরমিজি [২১২১]; এ হাদিসের সনদে দুর্বলতা থাকলেও এর সমর্থক হাদিস রয়েছে। হাদিসটি পূর্ণাঙ্গরূপে বর্ণনা করার প্রয়োজন ছিল। ইমাম তিরমিজি বলেছেনঃ হাদিসটি হাসান সহিহ। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২৩. কাপড় থেকে বীর্য দূরীকরণের পদ্ধতি

২৭- আয়িশা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন,`রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] তাহাঁর কাপড় হতে শুক্র ধুয়ে ফেলে ঐ কাপড়েই সলাত আদায় করিতে চলে যেতেন আর ধোয়ার চিহ্নটা আমি কাপড়ের মধ্যে দেখিতে পেতাম। {৩৬}

{৩৬} বুখারী [২২৯]; মুসলিম [২৮৯]; সুলাইমান বিন ইয়াসার সুত্রে আয়িশাহ [রাঃআঃ] হতে। আর উল্লেখিত শব্দ ইমাম মুসলিমের। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

২৮- বর্ণনাকারী থেকে বর্ণিতঃ

মুসলিমে রয়েছে-`রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ]-এর কাপড় হতে আমি শুক্রকে ভালভাবে ঘষে উঠিয়ে দিতাম। অতঃপর তিনি ঐ কাপড় পরিধান করেই সলাত আদায় করিতেন। {৩৭} মুসলিমের অন্য শব্দে এরূপ আছে, “শুক্র শুকনো থাকলে তার কাপড় হতে আমি নিজের নখ দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তুলে দিতাম। {৩৮}

{৩৭} মুসলিম [২৮৮], {৩৮} মুসলিম [২৯০] আব্দুল্লাহ বিন শিহাব খাওলানী সুত্রে। তিনি বলেন, আমি আয়িশাহ [রাঃআঃ] এর নিকট গেলাম। অতঃপর রাত্রিতে আমার কাপড়ে স্বপ্নদোষ হয়ে গেল। ফলে কাপড়কে আমি পানিতে ডুবিয়ে দিলাম। আয়িশাহ [রাঃআঃ]’র এক দাসী তা দেখে ফেলল। সে আয়িশাহ [রাঃআঃ] কে এই সংবাদ দিয়ে দিল। অতঃপর আয়িশাহ [রাঃআঃ] এর নিকটে আমাকে ডাকা হলো। তিনি আমাকে বলিলেন, তুমি কেন এমন করলে? আমি বললাম, লোকেরা স্বপ্নে যা দেখে থাকে আমিও তাই দেখেছি। তিনি বলিলেন, তুমি কি কাপড়ে কিছু দেখেছো। আমি বললাম, না। তিনি বলিলেন, তুমি যদি কিছু দেখিতে পেতে তবে গোসল করিতে। তুমি কি দেখনি যে, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর কাপড় হতে শুকনো শুক্র আমার নখ দিয়ে খুচড়িয়ে তুলে দেই।,হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২৪. শিশু ছেলে ও মেয়ের পেশাব যুক্ত কাপড় পবিত্রকরণের পদ্ধতি

২৯- আবুস সাম্‌হি [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নাবী [সাঃআঃ] বলেন,`শিশুকন্যার পেশাব লাগলে ধুয়ে ফেলবে আর দুগ্ধপোষ্য পুত্র সন্তানের পেশাব লাগলে তাতে পানি ছিটা দিবে। হাকিম একে সহিহ বলেছেন। {৩৯}

{৩৯} আবূ দাউদ [৩৭৬]; নাসায়ি হাদিস [১৫৮]; হাকিম [১৬৬] আবূ সামহ হতে হাসান সনদে বর্ণনা করিয়াছেন। তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] এর খিদমত করছিলাম। অতঃপর রাসূল [সাঃআঃ] যখন গোসল দেয়ার ইচ্ছে করিলেন, আমাকে বলিলেন, তুমি আমার দিকে পিঠ করে ঘুরে দাড়াও, আমি তাই করলাম। ইতোমধ্যে হাসান অথবা হুসাইনকে সেখানে নিয়ে আসা হলো। সে রাসূল [সাঃআঃ] এর পিঠে পেশাব করে দিল। ফলে তা ধোয়ার জন্য উদ্ধত হলে রাসূল [সাঃআঃ] উক্ত হাদিসটি বর্ণনা করেন। এ হাদিসের সনদ অত্যন্ত সুন্দর। তা না হলেও এর অনেক সমর্থক হাদিস থাকার কারণে আমি হাদিসটি সহিহ বলতাম। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২৫. [মহিলাদের] ঋতুস্রাব রক্তের কাপড় পবিত্রকরণের পদ্ধতি

৩০- আসমা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

হায়িযের রক্ত কাপড়ে লেগে যাওয়া প্রসঙ্গে রসূলুল্লাহ [সাঃআঃ] বলেছেন,`পানি দিয়ে ঘষা দিবে তারপর পানি দ্বারা ভালোভাবে ধৌত করিবে। অতঃপর সলাত আদায় করিবে।’ {৪০}

{৪০} বুখারী [২২৭], [৩০৭]; মুসলিম [২৯১] ফাতিমাহ বিনতে মুনজির সুত্রে, তিনি তার দাদী আসমা হতে হাদিসটি বর্ণনা করেন। হাদিসের তাহকীকঃ সহিহ হাদিস

পরিচ্ছেদ ২৬. মহিলাদের ঋতুস্রাব ধৌত করার পর [কাপড়ে] এর চিহ্ন মার্জনীয়

৩১- আবূ হুরাইরা [রাঃআঃ] থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, খাওয়ালাহ বিনতে ইয়াসার [রাঃআঃ] নাবী [সাঃআঃ] -কে বলেছেন,`হে আল্লাহর রসূল! যদি রক্ত-চিহ্ন দূর না হয়? তিনি [সাঃআঃ] বলিলেন,`কেবল পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলাই যথেষ্ট, রক্তচিহ্ন তোমার কোন ক্ষতি করিবে না।’ – তিরমিজি দুর্বল সানাদে বর্ণনা করছেন। {৪১}

{৪১} ইবনু হাজার যইফ বলেছেন। আবূ দাউদ[১/৩৬৫] আহমাদ সহিহ সনদে [৮৫৪৯] হাদিসটি বর্ণনা করেন। আলবানী একে সহিহ বলেছেন। হাদিসের তাহকীকঃ অন্যান্য

By বুলূগুল মারাম

এখানে কুরআন শরীফ, তাফসীর, প্রায় ৫০,০০০ হাদীস, প্রাচীন ফিকাহ কিতাব ও এর সুচিপত্র প্রচার করা হয়েছে। প্রশ্ন/পরামর্শ/ ভুল সংশোধন/বই ক্রয় করতে চাইলে আপনার পছন্দের লেখার নিচে মন্তব্য (Comments) করুন। তবে আমরা রাজনৈতিক পরিপন্থী কোন মন্তব্য/ লেখা প্রকাশ করি না। “আমার কথা পৌঁছিয়ে দাও, তা যদি এক আয়াতও হয়” -বুখারি ৩৪৬১। তাই লেখাগুলো ফেসবুক এ শেয়ার করুন, আমল করুন

Leave a Reply